• ইভেন্ট নিউজ

September 29, 2018 6:43 pm

প্রকাশকঃ

তায়েরুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ, গাজিপুর এ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশে এবং চিকিৎসক ও চিকিৎসা শিক্ষার্থীদের সংগঠন প্ল্যাটফর্মের সহযোগিতায়, কমিউনিটি মেডিসিন ও মাইক্রোবায়োলজি ডিপার্টমেন্টের তত্বাবধানে, সারাদেশের ৪৫ টি মেডিকেল কলেজের সাথে একযোগে পালিত হলো “বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস ২০১৮”।

সায়েন্টিফিক সেমিনারের উদ্বোধনী বক্তৃতা প্রদান করছেন তায়েরুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আব্দুল খালেক আকন্দ, স্যার।

সায়েন্টিফিক সেমিনারের উদ্বোধনী বক্তৃতা প্রদান করছেন তায়েরুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আব্দুল খালেক আকন্দ, স্যার।

সকাল ১১টায় কলেজটিতে একটি সায়েন্টিফিক সেমিনারের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অনুষ্ঠানটি সুন্দর ও সাবলীলভাবে পরিচালনা করেন কমিউনিটি মেডিসিন ডিপার্টমেন্টের সম্মানিত প্রফেসর ডা. সাঈদা রিয়া, ম্যাডাম।

কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আব্দুল খালেক আকন্দ স্যার তার শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন। তিনি তার বক্তব্যের মাধ্যমে জলাতঙ্ক রোগ নিয়ে সবার মাঝে একটি ধারণা দেন এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই সচেতনতামূলক কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন। এধরণের জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমের সাথে সংযুক্ত থাকার জন্য তিনি তার সকল ছাত্রছাত্রী এবং উপস্থিত সকলকে আহবান জানান।

এরপর, জলাতঙ্ক রোগ নিয়ে বিস্তারিত উপস্থাপন করেন কমিউনিটি মেডিসিন ডিপার্টমেন্টের প্রভাষক ডা. আহমাদ জুবায়ের মাহদী স্যার ( এমবিবিএস, এমপিএইচ, বিএসএমএমইউ)। তিনি তার বক্তব্যে জলাতঙ্ক রোগ সম্পর্কে বর্তমান বিশ্বের সার্বিক পরিস্থিতি সুন্দরভাবে তুলে ধরেন। জলাতঙ্ক রোগ প্রতিরোধে সকলের করণীয় কি এবং কিভাবে এই রোগে মৃত্যুর হার কমিয়ে শূণ্যের কোটায় আনা যায় সেই বিষয়ে বিস্তর দিক নির্দেশনা দেন তিনি তার বক্তব্যে। এসময় তিনি জলাতঙ্ক রোগ সর্ম্পকে আমন্ত্রিত অতিথিদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

এরপর বক্তব্য রাখেন কলেজের মাইক্রোবায়োলজি ডিপার্টমেন্টের সম্মানিত সহকারী অধ্যাপক ডা. মাইজ-উল-আহাদ সুমন স্যার। তিনি তার বক্তব্যে জলাতঙ্ক রোগ প্রতিকার নিয়ে বিস্তারিত বর্ণনা করেন। তিনি তার বক্তব্যের মাধ্যমে জলাতঙ্ক রোগের ভাইরাস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেন।

এরপর বক্তব্য রাখেন কলেজের নবজাতক ও শিশুরোগ বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা. আব্বাস উদ্দিন খান। তিনি তার বক্তব্যের মাধ্যমে সকলকে তাদের ছোট শিশুদের কুকুর, বিড়াল ও বিভিন্ন গৃহপালিত পশু থেকে নিরাপদে রাখার আহবান জানান।

এছাড়াও সেমিনারটিতে উপস্থিত ছিলেন, সকল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহ সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ।

কলেজের ছাত্রদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন ৪র্থ বর্ষের ছাত্র দেলোয়ার হুসাইন। প্ল্যাটফর্মের পক্ষ থেকে বক্তব্য প্রদান করে মোঃ আশরাফুল হক বাবন। তিনি তার বক্তব্যে সকলের কাছে প্ল্যাটফর্মের পরিচিতি ও কার্যক্রম তুলে ধরেন।

এরপর, কমিউনিটি মেডিসিন ডিপার্টমেন্টের সম্মানিত প্রফেসর ডা. সাঈদা রিয়া ম্যাম তার শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে সায়েন্টিফিক সেমিনারটির সমাপ্তি ঘোষণা করেন। তিনি তার বক্তব্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাশাপাশি চিকিৎসক ও চিকিৎসা শিক্ষার্থীদের সংগঠন প্ল্যাটফর্মকে ধন্যবাদ জানান এবং প্ল্যাটফর্মের কলেজ প্রতিনিধিদের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

সেমিনারের পর, সিগনেচার ব্যানারে সিগনেচার করার মাধ্যমে সিগনেচার ক্যাম্পেইন এর উদ্বোধন করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আব্দুল খালেক আকন্দ স্যার।

এরপর, প্ল্যাটফর্মের কলেজ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে এক র‍্যালীর আয়োজন করা হয়। সকল শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ এতে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহন করেন। র‍্যালীর পর তারা সাধারণ জনগণের মাঝে লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে জলাতঙ্ক রোগ সম্পর্কে জনসচেতনামূলক কার্যক্রম চালনা করেন।

সেমিনার, র‍্যালী ও সিগনেচার ক্যাম্পেইনসহ পুরো অনুষ্ঠানটির নেতৃত্ব দান করে উক্ত কলেজের প্ল্যাটফর্মের প্রধান প্রতিনিধি ও এডমিন শারমিন লিজা ও এডমিন তন্ময় কর্মকার তনু। তাদের সাথে একাত্ব হয়ে কাজ করেন প্ল্যাটফর্মের মডারেটর, মোঃ আশরাফুল হক বাবন, এক্টিভিস্ট মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মিশু, ওমর ফারুক, দেলোয়ার হুসাইন, অনিক সাহা, আহসানুল হাকিম সজল, রাসেল আহমেদ আতিফ, জাহিদুল ইসলাম, টুটুল, মাসুদ রানা, শোভন এবং দিনা। পরিশেষে সুন্দরভাবে জনসচেতনামূলক কার্যক্রমটি পরিচালনা করার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও টিম প্ল্যাটফর্মকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ তায়েরুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ, র‌্যাবিস ডে,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.