ডায়াবেটিস চিকিৎসায় নতুন সংযোজন CGM (Continuous Glucose Monitoring)

♦ CGM কি?

দিন-রাতজুড়ে রিয়েল টাইমের (বাস্তব সময়) গ্লুকোজ মাত্রা পরিমাপের একটি উপায় যা দিয়ে তিন থেকে ছয় দিন একটি ছোট গ্লুকোজ সেন্সর শরীরে স্থাপন করে পরবর্তী সময়ে গ্লুকোজের মাত্রার রিডিং নেয়া হয় এবং ২৪ ঘণ্টার সার্বক্ষণিক চিত্র তুলে ধরা হয়।

♦ CGM কেনো?

এই ডিভাইসটি দিয়ে আপনি রক্তের গ্লুকোজের মাত্রার আরো পরিপূর্ণ সার্বক্ষণিক রিডিং পাবেন যেটা বাজারে প্রচলিত গ্লুকোমিটার দিয়ে সম্ভব নয়। যা আপনার ডায়াবেটিস চিকিৎসা ও নিয়ন্ত্রনের ক্ষেত্রে খুবই জরুরী।

♦ CGM কিভাবে কাজ করে?

গ্লুকোজের মাত্রা পরিমাপের জন্য অতি ক্ষুদ্র একটি ইলেকট্রোড (গ্লুকোজ সেন্সর) আপনার চামড়ার নিচে প্রতিস্থাপন করা হয় যা একটি ট্রান্সমিটারের সাথে সংযুক্ত থাকে। এটি রেডিও ফ্রিকোয়েন্সির মাধ্যমে একটি মনিটরিং ডিসপ্লে ডিভাইস এ তথ্য সরবরাহ করে। এই মনিটরিং ডিভাইসটি আপনাকে অ্যালার্মের মাধ্যমে সতর্ক করে দিবে যখন আপনার রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা অনেক কমে অথবা বেড়ে যাবে।

♦ CGM ডিভাইসে কি কি থাকে?

১. CGM মনিটর ইউনিট (ইনসুলিন পাম্প) :- এটি ছোট একটি মনিটর যা আপনার বেল্টের সাথে অথবা পকেটে অতি সহজেই রাখতে পারবেন। এটি দিয়েই আপনি আপনার বর্তমান গ্লুকোজের মাত্রা জানতে পারবেন।

২. CGM ট্রান্সমিটার :- এটি ওয়াটারপ্রুফ, খুব ছোট ও হালকা যেটা কিনা গ্লুকোজ সেন্সরের সাথে সংযুক্ত। এটি তথ্য একত্রিত করে সম্পূর্ণ তারবিহীনভাবে মনিটর ইউনিটে সরবরাহ করে।

৩. গ্লুকোজ সেন্সর :- এটি আপনার শরীরের চামড়ার নিচে প্রতিস্থাপন করা হয়। এটি কয়েকদিন পর পর পরিবর্তন করা যায়।

৪. Insertion টুল :- এটি সিরিঞ্জের মতো একটি টুল যার ভেতরে গ্লুকোজ সেন্সর থাকে। পিস্টনের সাহায্যে আপনি নিজেই আপনার শরীরে সেন্সর প্রতিস্থাপন করতে পারবেন।

♦ কাদের জন্য CGM?

★ যাদের রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক বেশি।

★ যাদের রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা প্রায়ই কমে যায় অথবা যারা কমে যায় কিনা জানেন না।

★ যাদের রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা খুব বেশি ওঠানামা করে।

★ যারা গর্ভবতী অথবা সন্তান নেয়ার কথা চিন্তা করছেন।

★ যারা টার্গেট A1C লেভেল হাইপোগ্লাইসেমিক ইভেন্ট না বাড়িয়ে কমাতে চায়।

★ যেসব শিশু-কিশোরের A1C টার্গেট লেভেলের বেশি।

♦ CGM এর আর কোনো বিশেষ সুবিধা আছে কি?

হ্যাঁ-
★ বার বার শরীরে সুই ফুটানোর ঝামেলা নেই।

★ আপনার গ্লুকোজের মাত্রা কোন দিকে যাচ্ছে, অর্থাৎ Hypo বা Hyper হওয়ার সম্ভাবনা।

★ গ্লুকোজের মাত্রা কম বা বেশির পূর্বাভাস, বিশেষ করে ঘুমের সময়ে।

★ খাদ্য, শারীরিক কার্যকলাপ, ওষুধ এবং অসুস্থতা আপনার ডায়াবেটিসে কীভাবে প্রভাব ফেলছে।

★ গুরুত্বপূর্ণ সময়ে (ড্রাইভিংয়ের আগে, ব্যায়াম করার আগে-পরে, খেলাধুলার আগে-পরে, পরীক্ষা দেয়ার আগে) শরীরে গ্লুকোজের মাত্রা।

♦ রেফারেন্স :-

1. MiniMed 530G User Guide, Paradigm REAL-Time Revel System Insulin Pump User Guide

2. Grunberger G, Bailey TS, Cohen AJ, et al; and AACE Insulin Pump Management Task Force. Statement by the American Association of Clinical Endocrinologists Consensus Panel on insulin pump management. Endocr Pract. 2010;16(4):746-762

3. The MiniMed 530G with Enlite system is only approved for use in individuals 16 and over. It is NOT approved for use in pregnant women or those undergoing dialysis; performance characteristics have yet to be established for these groups.

নাহিদ সোহান

4 thoughts on “ডায়াবেটিস চিকিৎসায় নতুন সংযোজন CGM (Continuous Glucose Monitoring)

Comments are closed.

Next Post

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল এন্ড রিসার্চ ইন্সটিটিউট এর অধীনে "সার্টিফিকেট কোর্স অন কার্ডিওভাস্কুলার ডিজিজ"

Sat May 16 , 2015
Only for MBBS Doctors. 60 SHARES Share on Facebook Tweet Follow us Share Share Share Share Share

Platform of Medical & Dental Society

Platform is a non-profit voluntary group of Bangladeshi doctors, medical and dental students, working to preserve doctors right and help them about career and other sectors by bringing out the positives, prospects & opportunities regarding health sector. It is a voluntary effort to build a positive Bangladesh by improving our health sector and motivating the doctors through positive thinking and doing. Platform started its journey on September 26, 2013.

Organization portfolio:
Click here for details
Platform Logo