কোরবানির মাংস ও শিশুর ইদ

প্ল্যাটফর্ম প্রতিবেদন, ২৯ জুলাই ২০২০, বুধবার

ডা. হোসাইন আহমেদ ইব্রাহিম
এমবিবিএস (সিউ)
ডিসিএইচ-কোর্স (শিশু)
ডা. এম আর খান শিশু হাসপাতাল, ঢাকা।

সামনেই কোরবানির ইদ, ইদ উপলক্ষে সবার বাসাতেই কম বেশি হরেক রকমের মাংসের আইটেম থাকবে। পরিবারের বড় সদস্যরা যেখানে ভুনা মাংস, কাবাব অথবা রেজালা বানিয়ে খাবেন, সেখানে পরিবারের ছোট শিশু যার জন্য হয়তো প্রথম ইদ, তার জন্যে মাংস কতটুকু প্রয়োজন?

প্রথম কথা হচ্ছে বাচ্চাকে ৬ মাসের আগে বুকের দুধ ছাড়া অন্য কিছু দেয়া যাবে না।

যদি বুকের দুধ ঠিক মত পায়, তাহলে এক ফোঁটা পানিও দেয়া যাবে না।

৬ মাসের পর থেকে বুকের দুধের পাশাপাশি নরম খিচুড়ি, সুজি, ফল ইত্যাদি খাওয়াবেন।

গরুর মাংস একদম ৬ মাসের পর পর না দিয়ে ৮/৯ মাস পর থেকে দিবেন। এই ক্ষেত্রে মাংসকে একদম নরম করে নিবেন এবং ঝাল মুক্ত করে বাচ্চাকে খাওয়াবেন।

তবে সবচেয়ে ভালো হয় মাংসকে খিচুড়ির সাথে মিশিয়ে নরম করে খাওয়ানো।

আরেকটা প্রশ্ন অনেকে করে থাকেন যে বাচ্চাকে গরুর দুধ খাওয়াবে কিনা?

যদিও গরুর দুধের মধ্যে অনেক প্রোটিন থাকে, কিন্তু ১ বছরের পূর্বে বাচ্চার গরুর দুধকে হজম করার মত সেই ক্ষমতা থাকে না, তাই ১ বছর আগে গরুর দুধ দেওয়া ঠিক হবে না। ১ বছর আগে গরুর দুধ খাওয়ানো হলে বাচ্চার এলার্জি দেখা দিতে পারে, সেই সাথে রক্ত শূন্যতাও দেখা দিতে পারে।

Sarif Sahriar

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

করোনা মহামারীর নতুন এপিসেন্টার দক্ষিণ এশিয়া

Thu Jul 30 , 2020
প্ল্যাটফর্ম নিউজ, ৩০ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার ড. খোন্দকার মেহেদী আকরাম এমবিবিএস, এমএসসি, পিএইচডি, সিনিয়র রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট, শেফিল্ড ইউনিভার্সিটি, যুক্তরাজ্য। সেই ২০২০ এর জানুয়ারী থেকে শুরু করোনা ভাইরাসের তাণ্ডব, কমার কোন লক্ষণ নেই! চীন থেকে শুরু করে, ইউরোপ আমেরিকা হয়ে এখন সে শক্ত অবস্থান নিয়েছে দক্ষিণ এশিয়াতে। ভারতে বসিয়েছে ভয়ংকর থাবা। […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট