কিভাবে লিখবেন মেডিকেল কারিকুলাম ভিটা কিংবা সিভি ?

নিউজটি শেয়ার করুন

কিভাবে লিখবেন Medical CV (Curriculum Vitae) ?????

সিভি লেখার অভ্যাস আমরা করেছি হাই স্কুলে, ইংরেজী সেকেন্ড পেপারে।তাই কিছুটা কমবেশি ধারণা সবারই আছে। তবে এক্ষেত্রে ব্যাপারটা একটু আলাদা।মেডিকেল সিভির কিছু বিশেষত্ব থাকে, কিছু ব্যতিক্রম পয়েন্ট এবং কিছু আলাদা নিয়ম।
নিয়মগুলো নিচে বুঝিয়ে দেওয়া হলঃ

Structure: 1. Personal Details, 2. Personal Statement, 3. Education and Qualification, 4. Prize and Awards, 5. Voluntary Activities 6. Career/Employment History, 7. Clinical Skill & Experience, 8. Courses & Conferences, 9. Research Experience, 10. Clinical Audit, 11. Publications, 12. Presentations, 13. Teaching Experience, 14. Management & Leadership skill, 15. Personal Interests, 16. Referees

Personal Details: নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর, ইমেইল ঠিকানা, জন্মতারিখ ও জাতীয়তা এগুলো আবশ্যক। এছাড়া আরও কিছু তথ্য যোগ করতে পারেন। আপনার মেডিকেল রেজিস্ট্রেশন নম্বরটি শেষে দিয়ে দিবেন।

Personal Statement: এটা একটা ছোট অনুচ্ছেদ। এখানে আপনি নিজের ভাষায় আপনার সম্পুর্ণ সিভির গুরুত্বপুর্ণ বিষয়গুলো অতি সংক্ষিপ্তভাবে তুলে ধরবেন আর নিজের পক্ষে একটু সাফাই গাইবেন। অনেকে এই বিশয়টি বাদ দিয়ে যায়, কিন্তু, এটি মেডিকেল সিভির খুবই গুরুত্ববহ অংশ। আপনি এটা সবার শুরুতেও দিতে পারেন।

Education & Qualification: আপনার অর্জিত ডিগ্রী/পরীক্ষা, বর্ষ, প্রতিষ্ঠান, ফলাফল এই চারটি পয়েন্ট আত্যাবশক। একটি ছক করে দিবেন। সাম্প্রতিক বিষয়গুলোকে অবশ্যই উপরে দিবেন, এবং অতীতের বিষয়গুলো সিরিয়ালি নিচে যাবে। সিরিয়াল ব্রেক করা যাবে না। (আপনার চাকরির বর্ণনা এটার অন্তর্গত নয়)

Prize & Awards: এটাও সাম্প্রতিকটা সবার উপরে, এভাবে ক্রমান্বয়ে নিচে নামবে। আপনার অসাধারণ কোন অর্জন থাকলে সেটা Personal Statement এ উল্লেখ করবেন। প্রতিযোগীতায় সুবিধা পাবেন।

Voluntary Activities: আপনি ছাত্র জীবন থেকে এখন পর্যন্ত অনেক সেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান বা কাজের সাথে থাকতে পারেন। সেগুলো এখানে উল্লেখ করবেন। জাতীয়ভাবে ও আন্তর্জাতিকভাবে থাকলে পয়েন্ট আলাদা হবে।

Career/Employment History: সাল/তারিখ, প্রতিষ্ঠান, স্থান, পদমর্যাদা অত্যাবশ্যক। Education পয়েন্টের মত ছক করে সাজাবেন।

Clinical Skills & Experience: আপনার কোন স্পেশাল যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা যা অন্যদের থেকে ব্যতিক্রম সেটা উল্লেখ করুন।

Courses & Conferences: আপনার Education পয়েন্টের ডিগ্রীগুলোর বাইরে আপনি যেসব ছোট ছোট শর্টকোর্স করেছেন, ওয়ার্কশপ করেছেন সেগুলো ক্রমান্বয়ে সাজান (সাম্প্রতিকটা উপরে)। সেগুলোর duration, provider, completion date আবশ্যক। এছাড়া আপনি যেসব একাডেমিক কনফারেন্স, সেমিনার অথবা প্রগ্রামে গিয়েছেন সেগুলোও সিরিয়ালি উল্লেখ করবেন।

Research Experience: আপনার যদি না থাকে তাহলে পয়েন্টটি বাদ দিবেন। আর যদি থাকে তাহলে রিসার্চের শিরোনাম, সময়কাল, ফান্ডিং, এক-দুই লাইনে উদ্দেশ্য ও ফলাফল উল্লেখ করবেন।

Clinical audit: বিদেশে প্রাক্টিসের/চাকরির আবেদন করতে গেলে এটা আবশ্যক। দেশে কিছু ক্ষেত্রে না হলেও চলে। উইকিপিডিয়াতে clinical audit বিষয়ে আর্টিকেল আছে, পড়ে ধারণা নিন।

Publications: আপনার সকল পাবলিকেশন উল্লেখ করুন, এমনকি যদি সেটা পাবমেডের বা পিয়ার রিভিউড না হয় তার পরেও। সেগুলকে ক্রমান্বয়ে সাজান। আপনার অনেক পাবলিকেশন থাকলে অরিজিনাল, কেস রিপোর্ট, রিভিউ, মেটা-এনালাইসিস ইত্যাদি শিরোনামে ভাগ করে দিন। (গুরুত্বপুর্ণ অংশ)

Presentation: আপনার ওরাল এবং পোস্টার প্রেজেন্টেশন ঊল্লেখ করুণ। সেগুলোর টাইপ, স্থান, সময়কাল উল্লেখ করুন।

Teaching Experience: এটি গুরুত্বপুর্ণ। আপনার শিক্ষকতার সময়কাল, প্রতিষ্ঠান, ক্লাস/সেমিস্টার, বিষয় উল্লেখ করা আবশ্যক।

Management & Leadership Skills: আপনি সামাজিক কোন কিছুতে নেতৃত্ব দিয়েছেন কিনা, কোন গুরুত্বপুর্ণ পদে ছিলেন কিনা, জনস্বাস্থ্য বিষয়ক কোন টিমকে নিয়ন্ত্রণ করেছেন কিনা সেগুলো এখানে উল্লেখ করুন।

Personal Interest: আপনি ব্যাক্তিগতভাবে আর কি কি পারেন, এবং আর কিসের প্রতি আগ্রহ আছে তা অতি সংক্ষিপ্তভাবে উল্লেখ করুন।

Referee: কমপক্ষে দুইজনের নাম, পদবী, ফোন, ইমেইল, ও প্রাতিষ্ঠানিক ঠিকানা উল্লেখ করুন। তারা আপনার সুপারভাইজর, শিক্ষক, প্রফেসর হতে পারেন।
বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ
১। আপনার মেডিকেল সিভিটি অবাঞ্ছিত কথায় ভরবেন না।
২। আপনি কিসে আবেদন করছেন, সিভিতে সেটির গুরুত্ব অনেক বেশি দিয়ে অপ্রোয়জনীয় বিষয় কমিয়ে ফেলুন।
৩। আপনি CV না Resume জমা দিবেন, খেয়াল রাখবেন। CV কমপক্ষে দুই পৃষ্ঠা হতে হয় এবং Resume সর্বোচ্চ দুই পৃষ্ঠা হবে।
৪। একটি মেডিকেল সিভি কমপক্ষে এক মাস ও সর্বোচ্চ ছয় মাস পরপর আপডেট করতে হয়।
৫। সাম্প্রতিক বিষয় যাই হোক না কেন সেগুলোকে উপরে দিয়ে ক্রমান্বয়ে নিচে অতীতের বিষয়ে যাবে।
৬। সিভিটি এমন ফরম্যাটে লেখুন যাতে দৃষ্টিনন্দন হয়।
৭। বুলেট বা পয়েন্ট আকারে লিখবেন, প্যারাগ্রাফকে যতসম্ভব এড়িয়ে যাবেন।
৮। Referee বিষয়টি গুরুত্বপুর্ণ, এটি সঠিক না হলে বাদ পড়তে পারেন।
৯। এটি লেখার পর কয়েকজনকে দিয়ে রিভিউ করান যেন কোন বানান ভুল না থাকে।
১০। আপনার সিভি অনেক ক্ষেত্রে সাফল্য ও ব্যার্থতার সেতু। তাই, এটি সাবলীল ও সহজবোধ্য করে তুলুন।

Reference:
এই আর্টিকেলটির অনেক রেফারেন্স। রয়েল কলেজ, ইউকের সিভি সম্পর্কিত কিছু মেইলো থেকে। বিভিন্ন ভার্সিটির ইন্সট্রাকশন, এবং WHO এবং British Medical Journal এর অনেক আর্টিকেল থেকে লেখা।

লিখেছেন ঃ তন্ময় শেখর বিশ্বাস

Ishrat Jahan Mouri

Institution : University dental college Working as feature writer bdnews24.com Memeber at DOridro charity foundation

3 thoughts on “কিভাবে লিখবেন মেডিকেল কারিকুলাম ভিটা কিংবা সিভি ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

এবার বাড়িতে রোগী দেখতে না যাওয়া চিকিৎসকের পা ভেঙ্গে দেয়া হলঃ চিকিৎসকদের বধ্যভূমি বাংলাদেশ

Tue Mar 15 , 2016
সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমার্জেন্সি মেডিকেল অফিসার ডাঃ কামরুল গতকাল রাতে জরুরী বিভাগে চিকিৎসা দিচ্ছিলেন। রাত ৯টার দিকে স্থানীয় এক প্রভাবশালী ব্যাক্তি ডাঃ কামরুলকে রোগী দেখার জন্য বাড়িতে যেতে বলেন। ডাঃ কামরুল বলেন তিনি বাড়িতে যাবেন না, রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে হবে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন ঐ প্রভাবশালী ব্যাক্তি।শাসিয়ে […]

Platform of Medical & Dental Society

Platform is a non-profit voluntary group of Bangladeshi doctors, medical and dental students, working to preserve doctors right and help them about career and other sectors by bringing out the positives, prospects & opportunities regarding health sector. It is a voluntary effort to build a positive Bangladesh by improving our health sector and motivating the doctors through positive thinking and doing. Platform started its journey on September 26, 2013.

Organization portfolio:
Click here for details
Platform Logo