চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেলেন ৩ বিজ্ঞানী

২০১৯ সালে চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কারের জন্য ৩ জনের নাম ঘোষণা করেছে সুইডিশ নোবেল কমিটি। তারা হলেন মার্কিন চিকিৎসাবিদ উইলিয়াম কাইলিন জুনিয়র ও গ্রেগ এল সেমেনজা এবং ব্রিটিশ চিকিৎসাবিদ স্যার পিটার র‍্যাডক্লিফ। ১৯০১ সাল থেকে শুরু হওয়া এই পুরস্কারে এটি ১১০ তম পুরস্কার।

অক্সিজেনের অনুপস্থিতিতে কোষ কিভাবে সাড়া দেয় এবং খাপ খাইয়ে নেয়- এ বিষয়ে গবেষণার স্বীকৃতিস্বরূপ এই ৩ চিকিৎসাবিজ্ঞানীকে নোবেল পুরস্কার দেয়া হচ্ছে।

শরীরে যখন অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দেয়, তখন ইরিথ্রোপয়েটিন (EPO) নামক এক ধরনের হরমোন বেড়ে যায়। এই ইরিথ্রোপয়েটিন (EPO) হরমোন লোহিত রক্তকণিকা উৎপাদনে সাহায্য করে যা সারা শরীরে অক্সিজেন বহন করতে পারে।
তাদের গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে শরীরে যখন অক্সিজেন ঘাটতি দেখা দেয়, তখন এর প্রতিক্রিয়াস্বরূপ শরীরে একধরনের প্রোটিন কমপ্লেক্স (dubbed HIF) বেড়ে যায়। এই কমপ্লেক্স ডিএনএ এর একটি নির্দিষ্ট অংশের সাথে বাইন্ড করে এবং ইরিথ্রোপয়েটিন হরমোনের লেভেল বাড়িয়ে দেয়। অক্সিজেনের উপস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এই প্রোটিন কমপ্লেক্স (dubbed HIF) কিভাবে মোডিফাই হয় এবং দ্রুত ভেঙে যায়, তাও উদঘাটিত হয়েছে তাদের এই গবেষণায়।

তাদের এই আবিষ্কার রক্তাল্পতা, ক্যান্সার এবং অন্য রোগের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নতুন কৌশলের প্রতিশ্রুতি দেয়ার পথ প্রশস্ত করেছে বলে জানায় ক্যারোলিনস্কা ইন্সটিটিউট।

চিকিৎসাবিদ স্যার পিটার র‍্যাডক্লিফ লন্ডনের ফ্রান্সিস ক্রিক ইন্সটিটিউট, উইলিয়াম কাইলিন হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি ও গ্রেগ এল সেমেনজা যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করছেন।

তথ্যসূত্র: ডাঃ মোঃ মনজুরুল হক
স্টাফ রিপোর্টার/ফাহমিদা হক মিতি

Platform

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

কারাগারে চিকিৎসা ব্যবস্থাঃ চিকিৎসকদের সুবিধা ও অসুবিধা

Tue Oct 8 , 2019
কারাগারের চিকিৎসা ব্যবস্থায় দুইটি প্রশাসন পাশাপাশি চলে, পরষ্পরকে সহায়তা করে। একটি প্রশাসন হলো কারা কর্তৃপক্ষ, যার প্রধান জেলসুপার (কেন্দ্রীয় কারাগারের ক্ষেত্রে সিনিয়র জেলসুপার), আরেকটি প্রশাসন মেডিকেল প্রশাসন, যার প্রধান মেডিকেল অফিসার অর্থাৎ সিভিলসার্জন, তাঁর অবর্তমানে সহকারী সার্জন। কারাগারের মেডিকেল অফিসার আর সহকারী সার্জন সম্পূর্ণ আলাদা। জেলকোড অনুযায়ী কারাগারের হাসপাতালের প্রধান […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট