• নিউজ

May 5, 2017 12:35 pm

প্রকাশকঃ

FB_IMG_1493965870118:

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অধীনে সারাদেশের প্রতিটি উপজেলা থেকে শুরু করে শহর পর্যন্ত সরকারী পর্যায়ের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, জেলা হাসপাতাল, জেনারেল হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও অন্যান্য বিশেষায়িত হাসপাতাল রয়েছে। দেশের বেশিরভাগ জনগোষ্ঠী এ সকল হাসপাতাল থেকে নিয়মিত স্বাস্থ্য সেবা গ্রহন করে। স্বাভাবিকভাবে যেখানে সেবা থাকে সেখানে সেবার প্রতি ক্ষোভ বা ভালো লাগা দুটোই থাকতে পারে। তথ্য প্রযুক্তির বিস্তৃতির বর্তমান যুগে তাই যত বেশি এসকল আলোচনা সর্বস্তরে আলোচিত হবে ততই সমস্যা নিরসন ও মানোন্নয়ন হবে।

এ লক্ষ্যেই স্বাস্থ্য অধীদপ্তরের অধীনে এসকল হাসপাতালে রয়েছে SMS Complain Suggestion System । স্বাস্থ্য সেবা গ্রহনকারী কোন ব্যাক্তি কোন নির্দিষ্ট সরকারী হাসপাতালে সেবা নিতে এসে যদি কোন অসুবিধার সম্মুখীন হন সেক্ষেত্রে তিনি নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে নির্দিষ্ট একটি নাম্বারে এসএমএস করতে পারেন। সাধারন কমপ্লেইন সাজেশন বক্স এর চেয়ে এই পদ্ধতির সুবিধা হলে পাঠানো এসএমএসটি ডিজি হেলথের সেন্ট্রাল সার্ভারে জমা হয় যা দেশের কর্তাব্যাক্তিরা সহ সকল মানুষই দেখতে পারেন। এসএমএস পাঠানোর পর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে একজন কর্মকর্তা প্রথমে অভিযোগকারীকে ফোন করেন এবং সমস্যাটির বিস্তারিত বিবরন জেনে নেন। এরপর উক্ত হাসপাতাল এর প্রধান কর্মকর্তাকে ফোন করে বিষয়টি জানানো হয় এবং তা সমাধান হয়েছে কিনা বা কতদিনের মাঝে সমাধান হবে বা সমাধান হতে কি প্রয়োজন ইত্যাদি জেনে নেয়া হয়। এই এসএমএস এবং উক্ত হাসপাতাল এর প্রতিক্রিয়া (সমাধান বা সমাধান এর প্রতিশ্রুতি) সবই দেশের যেকোন মানুষ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে যেয়ে দেখতে পারেন।

কোন নাম্বারে কিভাবে এসএমএস পাঠাতে হবে সেটি প্রচার করার জন্য সকল হাসপাতালের দৃশ্যমান স্থানে একটি সাইনবোর্ড লাগানো আছে। এরপরেও বিষয়টি অনেকের দৃষ্টিগোচর না হওয়ায় এবারের স্বাস্থ্য সেবা জোরদারকরণ প্রকল্পে প্রতিযোগীতার মাধ্যমে পুরষ্কার বিতরণ এর জন্য এই SMS Complain Suggestion System এর উপরে নাম্বার রাখা হয়েছে এবং হেলথ ম্যানেজারদের বলা হয়েছে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে আরো কয়েকটি করে সাইনবোর্ড বা পোস্টার তৈরি করে সকল দৃশ্যমান স্থানে টাঙ্গিয়ে দিতে এবং রোগীদের যেকোন অভিযোগ বা পরামর্শ এই পদ্ধতিতে জানানোর জন্য মোটিভেট করতেও বলা হয়েছে। এর ফলস্বরূপ বিগত কয়েকদিনে আগের তুলনায় অনেক বেশি SMS আসছে যা এই চমৎকার পদ্ধতিটিকে চলমান করে তুলছে।

আপনি দেশের একজন সাধারন নাগরিক হিসেবে সরকারি হাসপাতালে যেয়ে যদি কোন অসুবিধার সম্মুখীন হন তবে এই পদ্ধতিতে এসএমএস করে অভিযোগ বা পরামর্শ জানাতে পারেন। SMS এর পদ্ধতিঃ
আপনার মোবাইলে ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুনঃ
cmp "হাসপাতালের কোড" "অভিযোগ"
এবং পাঠিয়ে দিন 01733077774 এই নাম্বারে। সকল হাসপাতালের জন্যেই এই একই নাম্বার প্রযোজ্য তবে হাসপাতালগুলোর এসএমএস কোড আলাদা। কোডটি হাসপাতালে টাঙ্গানো সাইনবোর্ড থেকে পাওয়া যাবে।
উদাহরনঃ
cmp dmch toilet not clean
উপরের উদাহরনটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর জন্য। কয়েকটি বড় হাসপাতাল এর কোড দেয়া হলোঃ
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ dmch
মিটফোর্ড হাসপাতালঃ mitford
ময়মনসিং মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ mmch
ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ fmch
বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ szrmch
দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ dinajmch
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ rmch
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ rangmch
বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ sbmch
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ cmch
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ comch
কুর্মিটোলা হাসপাতালঃ kurmitolahospi
খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ kmch
পাবনা মানসিক স্বাস্থ্য হাসপাতালঃ pmh
জাতীয় পংগু হাসপাতালঃ nitor
জাতীয় চক্ষু হাসপাতালঃ nio
জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটঃ nimhr
জাতীয় কিডনি হাসপাতালঃ nikdu
জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতালঃ nidch
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটঃ nicvd
জাতীয় ক্যান্সার হাসপাতালঃ nicrh
শহীদ সোহরাওয়ার্দি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালঃ ssh
ইনস্টিটিউট অফ পাবলিক হেলথঃ iph
ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরঃ mis

এসএমএস পাঠানোর পর তা ডাটাবেজে গিয়েছে কিনা দেখতে চাইলে বা অন্যান্য হাসপাতালে কি অভিযোগ এসেছে তা দেখতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট (www.dghs.gov.bd) এ ঢুকে বাম দিকে "ড্যাশবোর্ড" লেখা অংশে ক্লিক করতে হবে। নতুন যে পেইজটি আসবে তার বাম দিকের মেনুতে একেবারে শেষের দিকে "Accountability" অপশন এর ড্রপ ডাউন মেনুতে ক্লিক করে "SMS Complaints and Suggestions" এর উপর ক্লিক করলে নিচের ছবির মত একটি পেইজ আসবে। এই পেইজের ডান দিকে বছর, মাস ইত্যাদি সিলেক্ট করে সেই মাসে সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে কি কি অভিযোগ বা পরামর্শ এসেছে এবং তা নিষ্পত্তি হয়েছে কিনা সেটা দেখা যাবে। সরাসরি লিংকঃ http://103.247.238.81/webportal/pages/complain.php

তথ্যের অবাধ চলাচল ও সবার অংশগ্রহনের মাধ্যমে দেশের প্রতিটি সেক্টর এর মনিটরিং জোরদার করতে পারলে প্রায় সব ধরনের সমস্যাই দ্রুত সমাধান করে ফেলা সম্ভব। সরকারি স্বাস্থ্য সেবা ব্যাবহার করুন এবং পরামর্শের মাধ্যমে একে উন্নত হতে সহায়তা করুন।

....
লিখেছেনঃ
ডা. মারুফুর রহমান অপু
মেডিকেল অফিসার, ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম,
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
ফাউন্ডিং এন্ড রেগুলেটরি মেম্বার, প্ল্যাটফর্ম।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
.