যা ঘটেছিল, যা এসেছে

লেখকঃ ডাঃ মারুফুর রহমান অপু (HMO, DMCH)

১) দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের একটি হাসপাতাল বারডেমে “ভুল চিকিৎসার” অভিযোগে ৫০-৬০জন লোক মিলে পুলিশি প্রভাব খাটিয়ে ৩-৪ঘন্টা ধরে ডাক্তারদের মারধোর, মহিলা ডাক্তারকে টয়লেট ভেংগে বের করে কমোডে মাথা থেতলে দেয়া!

BIRDEM press realease
BIRDEM press realease

গণমাধ্যমে খবর: ভুল চিকিৎসার অভিযোগ থেকে বাচতে ডাক্তারদের ধর্মঘট নাটক। রোগীদের দূর্ভোগ!

২) কোন প্রকার অনুমতি ব্যাতিত স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের রেসপিরেটরি মেডিসিনের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধানের রুমে ঢুকে “ভুল চিকিৎসা” ধরতে যেয়ে স্যারের কলার ধরা এবং অপমান করে ভিডিও ফুটেজ গ্রহন। ততক্ষনে বাকি ডাক্তারেরা জানতে পেরে সাংবাদিকের ক্যামেরাসহ আটক। ডিরেক্টরের প্রহরায় তাদের অবস্থান এবং আরো সাংবাদিকের আগমন। টিভিতে নিউজ- “খবর সংগ্রহ করতে যেয়ে সাংবাদিক প্রহৃত” ফলে সাংবাদিকদের সাথে তরুন ডাক্তারদের হাতাহাতি ক্যামেরা ভাংচুর। সাংবাদিক কর্তৃক ডাক্তারদের বিরুদ্ধে মামলা। সলিমুল্লাহ মেডিকেলের সর্বস্তরের ডাক্তারদের মানব বন্ধন।

Human Chain by Mitford Doctors
Human Chain by Mitford Doctors

গণমাধ্যমে খবর: খবর সংগ্রহ করতে যেয়ে সাংবাদিকদের প্রহার করেছেন চিকিৎসকেরা
(অধ্যাপককে অপমান করার অংশটি চেপে যাওয়া হল)

৩) রাজশাহী মেডিকেল কলেজে তথাকথিত “ক্রিটিক্যাল” রোগীর চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে রোগী ও সাংবাদিকের অসন্তোষ। পুলিশ প্রহরায় সাংবাদিক ও রোগীর লোক কর্তৃক তিনজন ডাক্তারকে মেরে মাথা, নাক ফাটিয়ে দেয়া। বাকি ডাক্তারেরা টের পেয়ে সাংবাদিকদের সাথে ডাক্তারদের মুখোমুখি সংঘর্ষ। হামলার প্রতিবাদে ইন্টার্নী ডাক্তারদের ধর্মঘট।

গণমাধ্যমে খবর: ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু, প্রতিবাদ করতে যেয়ে সাংবাদিকদের মারধোর করলেন সন্ত্রাসী ডাক্তারেরা!
( উল্লেখ্য সেই কথিত মৃত রোগী এখনো হাসপাতালে বসে নিজের মরে যাওয়ার খবর পড়ছে!)

Rajshahi Medical Yellow Journalism
Rajshahi Medical Yellow Journalism

৪) সলিমুল্লাহ মেডিকেলে সাংবাদিকদের হামলার অভিযোগে ডিরেক্টরসহ ৫জন ইন্টার্নী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা। এর মাঝে দুজন ঘটনাস্থলে উপস্থিতই ছিলেন না!

৫) খবরে প্রকাশ: রাজশাহী ইউনিভার্সিটির উপাচার্য সাংবাদিকদের উপর হামলার অভিযোগে ইন্টার্নী চিকিৎসকদের সনদ বাতিল করার ঘোষনা দিয়েছেন।

উপাচার্যের প্রেস রিলিজ: আমি এ ধরনের কোন কথা বলিনি।

প্রিয়  সুশীল সমাজ, এরপরেও কি আপনারা আমাদের কাছে ভুল চিকিৎসা নিতে আসবেন নাকি সাংবাদিকদের কাছে সঠিক চিকিৎসার জন্য যাবেন?
এখনো কি সময় হয়নি এসব জন্ডিসে আক্রান্ত মিডিয়া বর্জন করার?

ডক্টরস ডেস্ক

2 thoughts on “যা ঘটেছিল, যা এসেছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

বিকল্প মিডিয়া বনাম হলুদ সাংবাদিকতা

Wed Apr 23 , 2014
ডাঃ সাইফুল ইসলাম (প্রবাসী লেখক, IGMH – Indira Gandhi Memorial Hospital, মালদ্বীপ) তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতি বিশেষ করে ফেসবুকের অতি জনপ্রিয়তার দরুন সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে আমাদের নিরীহ ভালমানুষ সাংবাদিক ভাইয়েরা। মেডিক্যাল কলেজের প্রথমবর্ষের ঘটনা। হাসপাতাল কর্মচারী 60 SHARES Share on Facebook Tweet Follow us Share Share Share Share Share

Platform of Medical & Dental Society

Platform is a non-profit voluntary group of Bangladeshi doctors, medical and dental students, working to preserve doctors right and help them about career and other sectors by bringing out the positives, prospects & opportunities regarding health sector. It is a voluntary effort to build a positive Bangladesh by improving our health sector and motivating the doctors through positive thinking and doing. Platform started its journey on September 26, 2013.

Organization portfolio:
Click here for details
Platform Logo