• sticky

January 17, 2017 11:20 pm

প্রকাশকঃ

চিকিৎসা সেবা আইন ২০১৬ সম্পর্কে প্রশ্নমালা
স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় কর্তৃক “চিকিৎসা সেবা আইন ২০১৬(খসড়া)” মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে জনসাধারণের মতামতের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। ২২/১/২০১৭ তারিখের মাঝে আইন সম্পর্কিত মতামত ইমেইলের মাধ্যমে অথবা হার্ডকপি মন্ত্রণালয়ে পৌঁছে দিতে নির্দেশ দেয়া হয়। বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ এবং চিকিৎসকদের সুবিধার্থে আমরা আইনের বিভিন্ন ধারা হুবহু বা আংশিক উল্লেখপূর্বক এখানে মতামতের জন্য প্রদান করছি। আপনাদের প্রদত্ত সকল মতামত চিকিৎসক ও চিকিৎসা শিক্ষার্থীদের পক্ষে পরিচালিত www.platform-med.org এর পক্ষ থেকে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে সফট কপির অনুলিপি এবং মন্ত্রণালয়ের অনুমতি সাপেক্ষে হার্ডকপি পৌঁছে দেয়া হবে। সকলের কাছে অনুরোধ নিচের ফর্মটি পূরণ করুন, নিজেদের পেশার সম্মান সমুন্নত রাখতে উক্ত প্রশ্নমালা প্রিন্ট করে(গুগল ফর্ম ফর্মেট ছাড়াও একটি পিডিএফ যুক্ত করা হলো) বাংলাদেশের সকল স্তরের চিকিৎসক, চিকিৎসা শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছে দিন, নিজেদের যৌক্তিক মতামত প্রদান করুন এবং অবশ্যই সাধারণ মানুষ নিজেদের স্বাস্থ্য সেবা অক্ষুণ্ণ রাখতে এবং সর্বোচ্চ সেবা পেতে মতামত প্রদান করুন।

এখানে মতামত দিন লিঙ্কঃ https://goo.gl/forms/rggYT0zL9FL2Q2PD3
একটি ওয়ার্ড ফাইল ও যুক্ত করা হলো।

LAw qs

ডাঃ মোহিব নীরব
চিকিৎসক ও উন্নয়ন কর্মী

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 3)

  1. DR.SHARIWATULLAH KHAN says:

    কোন ভাবেই বিদেশী ডাক্তারদের সরাসরি চাকুরী বা প্রাক্টিস করার অনুমতি দেয়া যাবে না।
    ডাক্তারদের ফি আইন এর আওতায় আনার কোনো প্রয়োজন নেই, কারন কোনো প্রফেশনেই এ ধরনের রীতি নেই।
    পেরিফেরিতে প্রাক্টিস করা বন্ধ করার আগে রেফারেল সিস্টেম চালু করতে হবে।
    ডাক্তারদের শাস্তি কোনো ভাবেই ফোজদারি আইনে হতে পারে না কারন কোনো ডাক্তারই তার রোগী কে মারতে চায় না,এর জন্য বরখাস্ত করা যেতে পারে, লাইসেস্ন বাতিল করা যেতে পারে।
    ধন্যবাদ




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.