• চিকিৎসা সহায়ক

August 20, 2015 9:25 am

প্রকাশকঃ

বিসিআর থেরাপি একটি সাইবারনেটিক ব্যথা উপশমের মাধ্যম। “Pain” শব্দটার উৎপত্তি হয়েছে ল্যাটিন ‘Poena’ (Penalty) থেকে, যার অর্থ শাস্তি। প্রাচীন গ্রীসে ব্যাথা কে ‘ঈশ্বরের শাস্তি‘ হিসেবে ধরে নেয়া হত।

সময়, সেই জিপসি বুড়ো যে আজ একবিংশ শতাব্দীর উন্নত প্রযুক্তির যুগে এসে পৌছেছে। কিন্তু ব্যাথার হাত থেকে তার মুক্তি মিলে নাই। উপরন্তু, পত্র নির্ভরতা ও অফিস মুখো হয়ে বসে থাকা এই নিত্য কর্মের ফলে আমাদের শরীর চর্চার প্রতি আগ্রহ প্রায় হারিয়ে যাচ্ছে। যা আমাদের সমানুপাতিক ভাবে ব্যাথার নিকট অরক্ষিত করে তুলছে।
দীর্ঘক্ষন কম্পিউটারের কাজ, অফিসে ডেস্কটপের কাজ, মেদ বাহুল্যতা ইত্যাদি সব কারন আমাদের আজকের মাথা ব্যাথা কিংবা কালকের অবশ্যম্ভাবী ‘ব্যাক পেইন’ এর দিকে নিয়ে যাচ্ছে ।
তথ্যসুত্রে জানা গেছে যে, প্রতি ৩ জন বাংলাদেশির ভিতর ১ জন এই ধরনের ব্যাথার ভুক্তভোগী।
এই বিষয় গুলো মাথায় রেখে ইক্লিনিকেয়ার লিমিটেড (eClinicare Ltd) নামক একটি কোম্পানী বাংলাদেশে প্রথমবারের মত বিসিআর থেরাপি সেবাটি চালু করেছে । তারা ঢাকাতে বিসিআর পেইন এন্ড ওয়েলনেস সেন্টার স্থাপন করেছে।

বিসিআর থেরাপি মূলত কি?
সহজ কথায় বিসিআর এর অর্থ হল জৈবনিক কোষ এর নিয়ন্ত্রন। এটি একটি জার্মান উদ্ভাবিত টেকনোলজি যা আইএসও(ISO) & ইউ(EU) সনদ প্রাপ্ত। যার দ্বারা আপনি ব্যাথা মুক্ত জীবনকে স্বাগত জানাতে পারবেন।
ধরা যাক , একজনের মেরুদন্ডের একটি কশেরুকা তার জায়গা থেকে কোনো কারনে নড়ে গেল, বিসিআর কখনোই দাবী করে না যে এই পদ্ধতিতে সার্জারী করে কশেরুকাটি আগের জায়গাতে ফিরিয়ে আনবে ।
বরং বিসিআর পদ্ধতি ব্যাথা থেকে মুক্তি দেয় স্থানীয় কোষ এর জ্বালা কমিয়ে ।

কেন আমার বিসিআর থেরাপি নেয়া উচিত?
– দ্রুত ব্যাথা থেকে মুক্তি
– পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই
– সম্পুর্ন যন্ত্রনাহীন ট্রিটমেন্ট
– কোনো ব্যাথা নিরাময়ক এর দরকার নেই , তাই কিডনী , লিভার থাকবে সুরক্ষিত ।
বিসিআর এর আছে মাইক্রো চিপ নির্ভর স্বয়ংক্রিয় প্রযুক্তি, যা পরিমাপ করবে আপনার ক্ষতিগ্রস্থ কোষের জৈবিক অবস্থা তার সাইবারনেটিক প্রযুক্তির মাধ্যমে। যা সম্পুর্নরুপে ক্ষতিহীন। এটি তে হেপাটাইটিস , এইচাইভি, ইত্যাদির কোন আশংকা নেই। আপনার কাছে কখনোই মনে হবে না যে আপনার শরীরের ভেতর কোনো কিছু রয়েছে।

এবার দ্রুত একটি হিসাব কষে ফেলুন তো!
ব্যাথা নিরাময় আর এসিডিটি বন্ধের জন্য ঠিক কতগুলো ওষুধ আপনি এ সপ্তাহে নিয়েছেন? আর তার পিছে কি পরিমান অর্থ ব্যায় হয়েছে, যার পরিবর্তে আপনার কাজের উদ্দিপনা, শারীরিক এবং মানসিক শান্তি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে? এটা কি আপনার অর্থনৈতিক বোঝা নয়?

বিসিআর থেরাপি কি করে কাজ করে??
এটি আপনার শারীরিক শক্তির সমপরিমাণ শক্তি তৈরি করে, (৬০০ মাইক্রো এম্পিয়ার)। এই মাইক্রো তড়িৎ নির্ভর শক্তি কোষের এটিপি (ATP) তৈরি কে বৃদ্ধি করে যা কোষের জ্বলন কমায় এবং কোষের পুনরায় তৈরি হবার হার বাড়িয়ে দেয়। মাইক্রো তড়িৎ এটিপি(ATP) তৈরি ৫০০% প্রায়, প্রোটিন উৎপন্ন করার হার প্রায় ৭৩%, ঝিল্লির যাতায়াত ৪০% বাড়িয়ে দেয় । এর ফলে ক্ষতিগ্রস্থ স্থান এর ব্যাথা খুব দ্রুত কমে যায়

কখন বিসিআর থেরাপি নেয়া প্রয়োজন???
স্লিপড ডিস্ক/ ডিস্ক প্রলেপ্সড / শায়াটিকা/ ফ্রোজেন শোল্ডার/ যেকোনো ধরনের জয়েন্ট পেইন/ আর্থ্রাইটিস/ ব্যাক পেইন / বুরসাইটিস / কার্পাল টানেল সিন্ড্রোম / টেনিস এলবো /ফাইব্রোমায়েলজিয়া / গেঁটেবাত / মাথাব্যথা / মাইগ্রেন /লিগামেন্ট অথবা টেন্ডনে আঘাত/ স্ট্রোক রিকভারি/ পার্কিনসম ডিজিজ

আমার কি বিসিআর থেরাপি দরকার আছে??
বিসিআর থেরাপি আপনার প্রয়োজন কিনা তা সেই সিদ্ধান্ত আপনারই ঠিক করতে হবে। প্রথম দিন চিকিৎসার পর আপনিই বুঝতে পারবেন এটা আপনার প্রয়োজন আছে কি নেই।

লিখেছেন:
Dr. Sunjida Shahriah
Managing Director
BCR Pain & Wellness Center
First floor , House # 104, Road# Park Road, New DOHS, Mohakhali, Dhaka-1206
Hotline: 01611144447; email: [email protected]

সম্পাদনা: রাবেয়া মাশফেরাত মেরী
পরিমার্জনা: বনফুল

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
.