৫টি মেডিকেল ও একটি ডেন্টালের-ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত

৫টি মেডিকেল কলেজ ও একটি ডেন্টাল কলেজের ভর্তিকার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ নীতিমালা সংক্রান্ত এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয় বলে মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা পরীক্ষিৎ চৌধুরী জানান।

এই ছয় প্রতিষ্ঠান হল- ঢাকার নর্দার্ন ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ, আইচি মেডিকেল কলেজ, সাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ, কেয়ার মেডিকেল কলেজ, কেরানীগঞ্জের আদ-দ্বীন বসুন্ধরা মেডিকেল কলেজ এবং রাজধানীর সাফেনা উইমেন্স ডেন্টাল কলেজ।
এবারের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বলা হলেও কলেজগুলো তাদের অন্যান্য শ্রেণির শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পারবে।

পরীক্ষিৎ চৌধুরী বলেন, “দেশের বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিদর্শন প্রতিবেদনের সুপারিশের ভিত্তিতে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখার এই সিদ্ধান্ত হয়।”

মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মানহীন কলেজ বন্ধে সরকারের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, যারা শর্ত পূরণ করতে পারছে না তাদের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। যদি তারা সব শর্ত পূরণ করে মানসম্মত কলেজে উন্নীত হতে না পারে তবে আগামীতে তাদের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হবে।

মেডিকেল কলেজগুলোতে মানের ঘাটতি সরকার কোনোভাবেই মেনে নেবে না বলেও সভায় হুঁশিয়ার করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম।

পরীক্ষিৎ জানান, গত শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী না পাওয়ায় ৫৬টি মেডিকেল অ্যাসিসটেন্ট ট্রেনিং স্কুলের (ম্যাটস) কার্যক্রম বন্ধ করারও সিদ্ধান্ত হয়েছে সভায়।

বাকি ১৪০টি ম্যাটস যথাযথ নিয়ম মেনে মানসম্মত শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে কিনা- তা পরিদর্শন করে প্রয়োজনে কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন।

দেশের ৬৯টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজের মধ্যে চারটির ভর্তি কার্যক্রম নীতিমালার শর্ত পূরণ না করায় গত শিক্ষাবর্ষে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল, যা এখনও বহাল আছে।

এছাড়া স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব সিরাজুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বিএমডিসির সভাপতি অধ্যাপক ডা. শহীদুল্লাহ, বিএসএমএমইউর ডিন অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলানসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সোনালী সাহা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

সার্জারির সংক্ষিপ্ত ইতিহাস (পর্ব-০৩)

Fri Aug 18 , 2017
আজ যার অবদানের কথা লিখবো, তার নাম প্রথমেই জানাবো না! দেখা যাক কতজন তার সম্পর্কে ধারণা করতে পারেন। জীবদ্দশায় একদমই স্বীকৃতি না পেলেও এখন তিনি সারাবিশ্বের জন্য এন্টিসেপটিক প্রসিডিউরের অন্যতম উজ্জ্বল নক্ষত্র। প্রধানত তিনি কাজ করেছেন প্রসূতি বিভাগে, আর এজন্যই তাঁকে “মায়েদের ত্রাণকর্তা” বা “saviour of mothers” বলে আখ্যায়িত করা […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট