• প্রথম পাতা

February 7, 2017 2:57 pm

প্রকাশকঃ

স্থানীয় কতৃপক্ষের বর্ণনা অনুসারে গতকাল মধ্যরাতে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন রোগীকে ১০-১২ জন লোক নিয়ে আসেন। উপস্থিন জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. জাকির তাতক্ষণিকভাবে রোগীর অবস্থা খুবই আশংকাজনক বুঝতে পারেন এবং Acute MI রোগ হতে পারে ধারনা করেন। উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্সে এ ধরনের রোগী ব্যবস্থাপনার মত উচ্চমানের ব্যাবস্থা না থাকায় ডা. জাকির রোগীর আত্নীয়দের দ্রুত রোগীকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে বলেন এবং নিজেই এম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা করে দেন।এম্বুলেন্স আনুমানিক ৩-৪ কি.মি যাবার পরেই রোগী মারা যায় এবং তারা এম্বুলেন্সসহ ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফিরে এসে ডা. জাকিরকে টেনে বের করে আহত করে। এ অবস্থায় আশেপাশের স্থানীয় কয়েকজন উক্ত চিকিৎসককে বাচাতে এগিয়ে এলে তারাও আহত হয় যার মাঝে একজন এর মাথায় আঘাত লেগে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়।

 

ঘটনাটি জানতে পেরে পরদিন সকালে ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ময়মনসিংহ জেলার সিভিল সার্জন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। স্থানীয়দের সহায়তায় হামলাকারীদের নাম ঠিকানা বের করে সরকারী কর্মচারীকে কর্তব্যরত অবস্থায় আঘাত, সরকারী কর্মচারীকে কাজে বাধা প্রধান ও সরকারি সম্পদ নস্ট করার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়াও গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত হাসপাতালের আউটডোর বন্ধ রাখার ঘোষনা দেয়া হয়। স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় আসামীদের গ্রেপ্তারের জোর তৎপরতা চলছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 1)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
.