• অভিজ্ঞতা

May 3, 2015 8:44 pm

প্রকাশকঃ

Lets discuss on a burning issue

বার্নিং ইস্যু বললাম বলে ভূমিকম্প ভেবে ভুল করবেন না । আমার বার্নিং ইস্যু লাইফ টাইম বার্নিং ইস্যু । এই ইস্যুতে আগ্রহের পারদ যাদের বেশি থাকেন তারা আমার দলভুক্ত নয় কিন্তু অস্বাভাবিকভাবেই সংখ্যায় অনেক অনেক বেশি ।

সে যাই হোক ………
Lets come to the point , i mean issue

কিছু কথা / মতামত —
১। পাবলিকের টাকায় পড়েন সেহেতু আপনাদের অবশ্যই ভদ্র , সভ্য , নম্র , সুশীল , বিনয়ী হতে হবে ।

২। এসেছেন সেবা করতে , অট্টালিকার মালিক হতে নয় ।

৩। দিবেন ফাকি , বাশ ভরমু নগদে রাখুম না বাকি ।

৪। আপনাদের কর্তব্যজ্ঞান কবে হবে বলুন তো !!! জলজ্যান্ত মানুষটাকে মেরে ফেললেন ???

৫। কতটাকা হলে আপনারা খুশি হন !!!!

৬। সব শালারা কসাই ।

৭। গরীব মানুষের দিকে একটু নজর দিয়েন , আময়াদের দেশের অর্ধেক মানুষ এখনো গরীব । তাদেরকে এভাবে চুষে খেতে আপনাদের বিবেকে বাধে না !!!!

৮। ৩০০ টাকা নেয়ার কি আছে !!! ৫০ টাকায় কি হতো না বা নিলে কি সমস্যা হতো ???

No more opinion
এতক্ষনে হয়তো বুঝে গেছেন what i mean to say.

হ্যা জনাব আমরা মেডিকেল কলেজগুলোতে জনগনের টাকায় পড়ি, জনগনকে ফিডব্যাক দেয়ার জন্যই পড়ি এবং ফিড ব্যাক দিইও , অবশ্যই দিই । কিন্তু আপনি কোন জমিদারের নাতজামাই ভায়া যে আপনার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আপনি নানাশশুরের টাকায় পড়তেছেন !!!! আপনিও যে জনগন আমিও সেই জনগন । আমার বাপের টাকায় আপনি পড়তেছেন , ঠিক তেমনিভাবে উল্টাটা ।

আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে আদব-কায়দা , জীবনবোধ , নম্রতা , ভদ্রতা এগুলো আসলেই শেখানো হয় না । কিন্তু আপনারা এতটাই নম্র , ভদ্র , বিনয়ী যে আপনাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে লাঞ্চিত করতে আপনাদের অনুভূতিতে লাগে না ; লাগবেই বা কিভাবে ভাই , হয়তো ভূল ঐ স্যারেরই ; আপনারা তো নম্র ।

” আমরা নম্র অতি শান্ত বড় , কথা বলতে মানা,
কথা বললেই ফাটবে মাথা , দেখার কেউ থাকে না ।”

আমরা জনগনের টাকায় পড়ে তাদের সেবা দেব না তা কি হয় !!! সেবাই হবে আমাদের একমাত্র ধর্ম । ডাক্তার একমাত্র সেবক শ্রেনী সমাজের , বাকি সবাই নিজের বাপের টাকায় পড়া গ্রাহক ।
ডাক্তারের ঘুম , খাওয়া , স্বাদ , আহ্লাদ থাকবে কেন ?? ওটাতো আমাদের পৈতৃক অধিকার । ডাক্তার মানেই ডাক্তার nothing else .

ডাক্তার মানেই সে ভিজিট নিতে পারবে না । সরি , ভুল বললাম । পারবে তবে সেটা কোনো ক্রমেই পঞ্চাশ টাকার অধিক নয় ।
ডাক্তার মানেই টেস্ট দিতে পারবে না , পাছে যদি কমিশনের টাকা পায় । সরি , এটাও ভুল বললাম । পারবে তবে সেটা রোগীর ইচ্ছায় ।

ডাক্তারের নিজের দুই তিন তলা বাড়ি থাকতে পারবে না । ওহ , এবার মনে হয় ঠিক বলছি । একতলার বেশি কি দরকার ডাক্তারদের ????

তা জনাব দেশে আরো যে সেক্টরগুলো আছে সেগুলোর কাজ কি তাহলে ??? পুলিশ বিভাগের কি কাজ ?? আইন বিভাগ , কাস্টমস , সড়ক ও জনপথ , ব্যাংক বিমা , ডিফেন্স , শিক্ষা বিভাগ , বস্ত্র বিভাগ , খাদ্য বিভাগ ……… আরো এত এত বিভাগ , এদের কি কাজ ???? এখানে যারা আপনারা আছেন তাদের কাজটা কি !!!!! নাকি এই বিভাগের কাজ গুলো সেবার আওতাধীন না ???

মানুষের মৌলিক অধিকার খাদ্য , বস্ত্র , বাসস্থান , চিকিতসা, শিক্ষা এবং নিরাপত্তা ।

এগুলো নিশ্চিত করা রাস্ট্রের প্রধান কর্তব্য । রাস্ট্র এই সেবা গুলো নিশ্চিত করবে কিন্তু তারমানে এই না যে এগুলো বিনামূল্যে দিবে ।
কই আপনি খাদ্য গুদামে গিয়ে চাল চেয়ে দেখেন তো বা সরকারীভাবে যখন চাল বিক্রি করা হয় সেখানে গিয়ে দু কেজি চাল ফ্রীতে চেয়ে দেখেন তো অথবা আপনি দোকানে গিয়েই চেয়ে দেখেন তো পান কিনা !!! ইভেন ৪৬ টাকার চাল আপনি ৪৫ টাকায়ও পাবেন না । কিন্তু এখানে কবি নীরব ।

মার্কেটে গিয়ে জামা কিনেন , সেখানে একটা ফ্রী চাইয়েন বা ২০০০ টাকার জিনিস ২০০ টাকা বলেন তো দেখি ; মান সম্মান পকেটে পুরে দেবে ওরা , হোক দোকানদার শিক্ষিত বা অশিক্ষিত । এখানেও কবি নীরব । অথচ বস্ত্র কিন্তু মৌলিক অধিকার ।

বাসা বানাবেন বা ভাড়া নিবেন । সরকারের কাছে যাইয়া কইয়েন তো আমার দুই কাঠা জায়গা লাগবে একটু দেন তো , সাথে আধা কাঠা ফ্রী দিয়েন কিন্তু । অথবা বাড়িওয়ালারে কইয়েন দশ মাসের ভাড়া তো দিলামই , বাকি দুইমাস ফ্রী দেন । নিশ্চয় বলবেন না , কারন এখানেও কবির বাচ্চা কবি নীরব ।

শিক্ষা , এইতো পাইছেন । আসেন একটু গলাবাজি করেন । সরকার এইডা তো বিনামূল্যে দিচ্ছে । আরে ভাই , এর পেছনের উদ্দেশ্য না বুঝলে আপনি মুড়ি কিনে একটা একটা করে গুনে গুনে খান । কিন্তু শিক্ষা নিয়েও আমার কথা আছে । নি:সন্দেহে শিক্ষকতা মহান পেশা । With Due respect to my all teachers , আপনার ছেলেকে যখন কোন স্যারের কাছে পড়াচ্ছেন তিনি কি আপনার ছেলেকে বিনা পয়সায় পড়াচ্ছেন !!! না , তিনি শিক্ষার মত একটা জিনিস টাকার বিনিময়ে দিচ্ছেন । হ্যা , তিনি টাকা নিচ্ছেন কারন শিক্ষা দানের এই মহত সেবামূলক কাজটিকে তিনি পেশা হিসেবে নিয়েছেন ; আর পেশাতে বিনিময় মূল্য থাকেই । এই কথাটা আপনি মেনে নিলেন , এবং আমি জানি এতক্ষন ধরে বলা কথা গুলোর ভিতর এই কথাটা আপনার সবচেয়ে ভাল লেগেছে । কিন্তু যেই আমি ডাক্তারদের কথা বলব , সেই কবি নীরব ।

আসেন আরো কিছুক্ষন মতবিনিময় করি । শিক্ষার পর আসে চিকিতসা ; এটা নিয়ে কথা আমি পরে বলব । না হলে আপনাকে ধরে রাখতে পারব বলে মনে হয় না ।

তাই এবার নিরাপত্তা বা আইনের সেবা নিয়ে একটু বকবক করা যাক । আপনার বাড়িতে সিকিউরিটি দরকার । একজন গার্ড নিলেন সিকিউরিটি প্রোভাইডারের কাছ থেকে । তা তাকে গিয়েও কিছু ছাড়ের বা ফ্রীর কথা বলেন না , প্লিজ বলেন । আর আইন , একজন উকিলের কাছে যান তো , গিয়ে আপনার কেসটা ফ্রীতে লড়ে দিতে বলেন । দিবে না
, i guaranty u দিবে না । অন্তত আমি দেখি নি ।
এখানেও কবির কিছুই বলার নেই , কবি নিশ্চুপ ।

এবার আসেন চিকিতসা নিয়ে মত প্রকাশ করি । The most burning fundamental rights of Bangladeshi General People . এটাই একমাত্র মৌলিক অধিকার যেখানে আপনি ফ্রী পাচ্ছেন , চাইলেও পাচ্ছেন । যতটুকু একজন ডাক্তারের আওতাধীন । ঔষধের দাম বেশি কেন এটা বলে যদি ডাক্তারের দোষ দেন তাহলে i have nothing to say . সরকারী হাসপাতালে পাচ টাকায় ডাক্তার পাচ্ছেন , সেখান থেকে ঔষধ পাচ্ছেন । কিন্তু এই পাওয়াটা আপনাদের চোখে পড়ে না , “ইয়ে হি তো আম বাত হে ” আপনাদের কাছে । যখনই হাসপাতাল থেকে কোন ঔষধ দিতে না পারে তখনই , ঐ ডাক্তার শালাই চোর ; সব বেইচ্চা খাইছে । But for your kind information , ডাক্তাররা ঔষধ বন্টনের সাথে জড়িত না । এর জন্য আলাদা কতৃপক্ষ আছে ।
এতো গেলো সরকারী সেবার কথা , যেখানে আপনারা ফ্রী পাওয়ার পরও সন্তুস্ট না । কারন ডাক্তার আপনারে ঠিক মতো দেখে নাই ।

এবার প্রাইভেট চেম্বারে আসুন , একটু ঘুরে যাই ।
ডাক্তার সাহেবের ভিজিট তিন শ টাকা । একজন রোগী আসলেন । চেহারা দেখেই মনে হচ্ছে গরীব এবং বেশ অসুস্থ্য । ডাক্তার সাহেব বেশ যত্ন সহকারে দেখলেন , প্রেস্ক্রিপশন করে দিলেন । যখন রোগী ভিজিটের জন্য তার লুঙ্গির গেরো থেকে খুচরা টাকার গুচ্ছো থেকে টাকা গুনে দিতে গেলেন তখন কসাই ডাক্তারটা বললেন , “আপনার টাকাটা দেয়া লাগবে না , এটা দিয়ে ঔষধগুলো কিনে নিয়েন । ” এটাই ডাক্তারি , এটাই মানবতা ।

ডাক্তারি একটা বিজ্ঞান । সুতরাং এটা আয়ত্তের ব্যাপার । সাধনার ব্যাপার । অনেক সাধনার ফল এই ডাক্তারি । এটা যারা প্রফেশন হিসেবে নিয়েছেন তারা আর যায় হোক কারওয়ানবাজারের মাছ বিক্রেতা না । টেস্ট ইনারা কমিশনের জন্য দেন না , পেশেন্টের কিওরের স্বার্থেই দেন , রোগ নির্ণয়ের জন্যই দেন ; আর আমার কথার সত্যতার ছোট্ট একটা উদাহরন দেই — আপনার যদি ডায়বেটিস হয় , সেটা কে যদি মেডিসিনের বইয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা করে নিশ্চিত সিদ্ধান্তে উপনীত হতে হয় তাহলে ২৭ টি টেস্ট করা লাগবে , Note this number 27 . কিন্তু আমাদের ডাক্তাররা একটি মাত্র টেস্ট ব্লাড গ্লুকোজ দিয়েই বুঝে ফেলেন ।
আমাদের ডাক্তারদের মত ক্লিনিক্যালি ইফিশিয়েন্ট ডাক্তার পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশেই নেই ; বিশ্বাস করুন , আমি এটা একটুও মিথ্যা বলছি না । যদি কখনো সুযোগ হয় মিলিয়ে দেখবেন ।

ডাক্তারদের বেচে থাকার জন্য অনেক টাকা লাগে না । আর আপনারা যারা ভাবেন সব ডাক্তার অনেক টাকার মালিক , তারা বোকার রাজ্যে বাস করেন ।

কর্তব্যজ্ঞানহীনতার যে অভিযোগ তুলেন না , এটা মিডিয়ার সৃস্টি । আমি ফান করছি না , স্রিয়াসলি এটা মিডিয়ার সৃস্টি । মিডিয়ার কিছু তথাকথিত সাংবাদিক নামক কুলাঙ্গারের সৃস্টি যাদের সাংবাদিকতা সম্পর্কে কোনো জ্ঞানই নাই ।

আমার আলোচনা শেষ পর্যায়ে । তা জনাব শেষমেষ একটা প্রশ্ন আমি করে যাই , এত গুলো সেক্টরের উদাহরন দিলাম । কোথাও ফ্রী বা মূল্য কমাতে পারলেন না , তাইলে ডাক্তারের ভিজিট ৩০০ তে এত আপত্তি ক্যান !!!!
জাস্ট একটা বার আইসা ট্রায়াল দিয়ে যান ডাক্তারের ছাত্রজীবনের সময়টার , পাচ বছর না আপনি একবছর থাকুন দেখুন বুঝুন । তাহলে আপনি এই তিন শ টাকার প্রশ্ন তুলবেন না , আমি বিশ্বাস করি আপনি তুলবেন না।

 

লেখাঃ  নাসিম অনি

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ Experience,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 4)

  1. দারুন হয়েছে লেখাটা।

  2. raiq says:

    I feel being a doctor in upazila perhaps one of the worst situation in Bangladesh right now.

  3. aparnaaddya says:

    Keno ai lekha gulo news paper a deya hoy na….general people er egulo jana uchit.




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
.