চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল তৈরির অনুমোদন সম্পন্ন

44

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য চিকিৎসক দীপু মনির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় অবশেষে জেলাবাসীর বহুল কাঙ্ক্ষিত মেডিকেল কলেজ চাঁদপুরে হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটি অনুমোদন দিয়েছেন। এখন জায়গা নির্ধারণের কাজ চলছে। জেলা প্রশাসন এ কাজটি করছে।

বিষয়টি প্রস্তাবনা আকারে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগে উপস্থাপনের পর যাচাই-বাছাই শেষে অবশেষে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলো। মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের প্রস্তাবনায় উল্লেখ করা হয়, ‘চাঁদপুর একটি নদীমাতৃক জেলা। শিক্ষা, যোগাযোগ এবং অর্থনৈতিক দিক দিয়ে অগ্রসর এ জেলার মোট জনসংখ্যা ২.৪ মিলিয়ন এবং শিক্ষার হার ৬৮% ভাগ। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের শীর্ষস্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঝে চাঁদপুরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অবস্থান উল্লেখযোগ্য। এ কারণে পার্শ্ববর্তী লক্ষ্মীপুর ও শরীয়তপুর জেলার অনেক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী চাঁদপুরে অবস্থান করে এ জেলায় প্রতিষ্ঠিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে লেখাপড়া করে আসছে। তবে মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের চিকিৎসা শাস্ত্রে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের জন্যে চাঁদপুরে কোনো প্রতিষ্ঠান নেই। ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালই চাঁদপুর জেলার অধিবাসীদের উন্নতমানের চিকিৎসাসেবার একমাত্র নির্ভরতা। এ প্রেক্ষাপটে পরীক্ষা-নিরীক্ষাক্রমে চাঁদপুর জেলায় একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপনের বিষয়টি বিবেচনা করতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দেয়া যেতে পারে।’ মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের এ প্রস্তাবনা পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ স্থাপনের বিষয়টি অনুমোদন প্রদান করলেন।

চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ অনুমোদন করায় জেলাবাসীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ডা. দীপু মনি। তিনি জানান, চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজের জন্যে আমি ডিও লেটার দেয়াসহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে একাধিকবার দেখা করে এ বিষয়ে গুরুত্বের সাথে বলেছি। অবশেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এটির অনুমোদন দেয়ায় মহান আল্লাহর শুকরিয়া আদায়সহ নেত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুর-৩ (চাঁদপুর সদর-হাইমচর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী ডা. দীপু মনির সর্বশেষ নির্বাচনী জনসভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ করার দাবি করেন ডা. দীপু মনি। অবশেষে ডা. দীপু মনির প্রতিশ্রুতি মেডিকেল কলেজ অনুমোদন পেলো।

সংবাদদাতা: বনফুল রায়

44 thoughts on “চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল তৈরির অনুমোদন সম্পন্ন

  1. ha ha…what a decision!!!! nuisance administration er nuisance decision…atoi jkhn sastho seba deya lagbe hospital khuluk….akekta hospital khuila rakhse jekhane unnoto sujog subidha nai…oisb hoospitaler obosthar unnoti koruk…bisesoggo doctor er niyog dek….parae parae mdcl clg khultese!!! how ediot our health authority!!

  2. প্রত্যেক ডাকতারের চেম্বারের উপরে একটা করে মেডিকেল কলেজ বানাইলে ভাল হয়।তাহলে আর চিকিসৎসার জন্য মানুষ বিদেশমুখী হবে না।আর ডাকতারদের চাকুরী না হলে ঔষধকোম্পানীর এমআর তো হতে পারবে।

  3. ডাক্তারের নামের আগে পিছে বেকার শব্দটা কবে লাগবে, সেই অপেক্ষায় আছি ।। mbbs পড়ে ডাক্তার হওয়ার চেয়ে MATS এ পড়ে (?)ডাক্তার হওয়া বর্তমান সময়ের জন্য ভালো ।।অন্তত ইগো জনিত সমস্যা কিছু কমবে, টাকা পয়সাও ভালো আসবে ।।

    1. porsu khbrta sunar por monta kharap hoiche jodio amr jilla..tarpor o chaina ar medical hwk..jgula ache khub kharap obostha..ato medical ar dorkar ache ble amr mne hoina..sorkar 64zilai 64medical korar dhandai ache…health sector dhongser pothe

  4. আমাদের গ্রামে একটি মেডিকেল কলেজ নেই.. 🙁 এতে জনগণের তীব্র সমস্যা হচ্ছে.. একটা মেডিকেল কলেজ এখন প্রাণের দাবি :p :p

  5. COPY PASTE

    উপজেলা ভিত্তিক মেডিকেল কলেজ তৈরী হবে সেদিন বেশী দূরে নয়।

    আমার গ্রামে একটা মেডিকে ল কলেজ চাই।।

    এত ডা. খায় না মাথায় দেয়!
    কয়দিন পর ঔষধ বাড়ি বাড়ি ফেরি করে বেচা লাগবে

    Amra Vabi birer lok propaganda chalai amader health sector k dhongsher jonne.kintu akhon mone hocche….govt e jotheshto pura sector k pochanor jonne…

    আমাদের গ্রামে একটি মেডিকেল কলেজ নেই.. 🙁 এতে জনগণের তীব্র সমস্যা হচ্ছে.. একটা মেডিকেল কলেজ এখন প্রাণের দাবি :p :p

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

এভারেস্ট জয়ের পথে ঢাকা কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ ছাত্রী

Sun Apr 16 , 2017
এভারেস্ট জয় করতে যাচ্ছেন আরও এক বাংলাদেশি নারী এবং তিনি একজন মেডিকেল শিক্ষার্থী। ঢাকা কমিউনিটি মেডিকেল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী মৃদুলা আমাতুন নূর। খুব শিগগিরই এভারেস্টের চূড়ায় বাংলাদেশের পতাকা ওড়াতে যাচ্ছেন তিনি। গতকাল শনিবার বাংলাদেশ সময় বেলা ১১টায় হিমালয়ের বহুকাঙ্ক্ষিত বেজক্যাম্পে পৌঁছান তিনি। ভূমি থেকে পাঁচ হাজার ৩৬৪ মিটার ওপরে […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট