সংকট এড়াতে নিজস্ব উদ্যোগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করছে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়

১৭ মার্চ, ২০২০
করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকার সবচেয়ে কার্যকর উপায় হচ্ছে নিজের হাত সবসময় পরিষ্কার রাখা। কিন্তু বর্তমানে বাজারে যখন চাহিদা অনুযায়ী হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সরবরাহ পাওয়া যাচ্ছেনা কিংবা পেলেও কিনতে হচ্ছে চড়া মূল্যে, তখন সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে ও শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের শতভাগ সুরক্ষা নিশ্চিত করতে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নিজ উদ্যোগে বানাচ্ছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

ঢাবি ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে তৈরি হ্যান্ড স্যানিটাইজার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা সম্পূর্ণ নিজেদের উদ্যোগে ২০০ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করেছে, যা ঢাবির ১৮ টি আবাসিক হলের শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে প্রদান করা হবে। আরও ৫০০ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের কয়েকজন ছাত্রের উদ্যোগে এবং বিভাগের চেয়ারম্যান নুরুল আবছার এর তত্বাবধানে নিজস্ব ল্যাবে তৈরি করা হয়েছে CHEMSOL নামের হ্যান্ড স্যানিটাইজার,যেগুলো ক্যাম্পাসের ছাত্রছাত্রীদের পাশাপাশি কয়েকজন রিক্সাচালক ও দোকানদারদের মাঝে বিতরন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(বুয়েট) রসায়ন ছাত্র অনুষদ নিজস্ব ল্যাবরেটরিতে তৈরি করেছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

 

 

বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাইজ এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থীরা নিজস্ব প্রচেষ্টায় তৈরি করে বিনামূল্যে বিতরণ করছে ALOEZOL নামক হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

পাশাপাশি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ফার্মেসি বিভাগ ও ফার্মেসি সোসাইটির শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে তৈরি করা হয়েছে ১৩০০ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস আশুলিয়ায় এবং ধানমন্ডিতে সিটি ক্যাম্পাসে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে বিতরণ করছে ফার্মেসি এবং নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৈরি নিজস্ব হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও হ্যান্ড ওয়াশ। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাদের মাঝে বিতরণের পাশাপাশি একাডেমিক সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটির আওতায় আশেপাশের এলাকার মসজিদ, পাবলিক টয়লেট, বাস স্টপেজ ও জনগুরুত্বপূর্ন স্থান সমূহে সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম. ইসলাম।

নিজস্ব প্রতিবেদক / ফাহমিদা হক মিতি

প্ল্যাটফর্ম স্টাফ রিপোর্টার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

জরুরী সেবার মানোন্নয়নে সোহ্‌রাওয়ার্দী হাসপাতালে "ক্র্যাশ কার্ট" উদ্বোধন

Tue Mar 17 , 2020
মঙ্গলবার, ১৭ই মার্চ,২০২০ খ্রিস্টাব্দ রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত শহীদ সোহ্‌রাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরূরী সেবার মান উন্নয়ন করতে উদ্বোধন করা হল “ক্র্যাশ কার্ট”। আজ ১৭ই মার্চ, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ইং তারিখ মঙ্গলবার হাসপাতালটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া মোট চারটি ক্র্যাশ কার্টের উদ্বোধন করেন। মূলত “ক্র্যাশ কার্ট” এমন এক ধরনের […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট