• ইভেন্ট নিউজ

September 29, 2018 7:18 pm

প্রকাশকঃ

জলাতঙ্ক একটি ভয়ঙ্কর মরণব্যাধি। এ রোগে মৃত্যুর হার শতভাগ। পৃথিবীর কোথাও না কোথাও প্রতি ১০ (দশ) মিনিটে একজন এবং প্রতি বছর সারা পৃথিবীতে প্রায় ৫৫-৬০ হাজার মানুষ জলাতঙ্কে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়।


জলাতঙ্ক মূলত কুকুরের কামড় বা আঁচড়ের মাধ্যমে ছড়ায়। এছাড়া বিড়াল, শিয়াল, বেজী, বানরের কামড়ে বা আঁচড়ের মাধ্যমেও এ রোগ হতে পারে। বাংলাদেশে প্রতি বছর প্রায় ৩ থেকে ৪ লাখ মানুষ কুকুর, বিড়াল, শিয়ালের কামড় বা আঁচড়ের শিকার হয়ে থাকে, যার মধ্যে বেশির ভাগই শিশু। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা এ তথ্য প্রকাশ করেছেন।

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস প্রতি বছর ২৮ সেপ্টেম্বর বিশ্বব্যাপী পালিত হয়। অ-লাভজনক প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল এলায়েন্স ফর র‍্যাবিস কন্ট্রোল তার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের দফতর থেকে এ দিবস পরিচালনায় প্রধান সমন্বয়ের ভূমিকা পালন করে।

এবারে প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে “জলাতঙ্ক : অপরকে জানান, জীবন বাঁচান”। দিবসটি উপলক্ষে ২৯ সেপ্টেম্বর শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ,বরিশালে সকাল ১০ ঘটিকায় এক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিল প্লাটফর্ম। শেবাচিম প্লাটফর্মের প্রতিনিধি ও ১০ জন ভলান্টিয়ার[ ডালিম(৫ম বর্ষ), অয়ন(৫ম বর্ষ), মেহেদি, মনির(৪র্থ বর্ষ), সাকিব, নিয়াজ, আসাদ, সাইফুল, রতন, রাসেল(৩য় বর্ষ)] এর একটি গ্রুপ অনুষ্ঠানটিকে সফল করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে। তাদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় সুন্দরভাবে দিবসটি পালিত হয়।

সেমিনারে জলাতংক বিষয়ে একটি সুন্দর স্লাইড প্রেজেন্টেশন করেন অত্র মেডিকেলের শিশু বিভাগ এর ডা: মেহেদী পারভেজ। এরপর প্লাটফর্ম ও এর কার্যক্রম সম্বন্ধে একটি প্রেজেন্টেশন করেন প্লাটফর্ম প্রতিনিধি শেবাচিম এর ৫ম বর্ষের ছাত্র রাসিন জামান অয়ন। উপস্থিত সম্মানিত শিক্ষকমন্ডলী বিষয়ভিত্তিক বক্তব্য দেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে অত্র মেডিকেলের শিশু বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ অসীম কুমার সাহা স্যার,মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডাঃ জাহাঙ্গীর কবির স্যার,সহকারী অধ্যাপক ডাঃ বিধান চন্দ্র স্যার এছাড়াও ডাঃ আকবর স্যার মাইক্রোবায়োলজি ডিপার্টমেন্ট,ডাঃমেহেদী পারভেজ স্যার পেডিয়াট্রিকস ডিপার্টমেন্ট সহ শ্রদ্ধেয় শিক্ষক মন্ডলী ও ছাত্রছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠানে বক্তারা জলাতঙ্ক প্রতিরোধে করনীয় ও জনসচেতনামুলক বক্তৃতা দান করেন।

সেমিনার শেষে র্য্যালি ও সিগনেচার গ্রহন করা হয়। সর্বমোট ৪৫ জন এর কাছে থেকে সিগনেচার গ্রহন ও প্রায় ১০০ জন কে কাউন্সেলিং করা হয়।

অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিল প্লাটফর্ম।প্লাটফর্ম শেবাচিম শাখার সদস্যদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় অনুষ্ঠানটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ Sher e bangla medical college, র‌্যাবিস ডে, শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.