লিভার চিকিৎসায় বাংলাদেশে যুগান্তকারী উদ্ভাবন এবং একদল ‘স্বপ্নীল’ চিকিৎসকের গল্প

29496504_1649399631814498_4729164345731000009_n

নবযুগ এবং একটি ‘স্বপ্নীল’ টিমের কথা ।
লিখেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় লিভার বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. শেখ মোহাম্মদ নূর-ই-আলম (ডিউ)।

 

নবযুগে পা রাখল বাংলাদেশ। আজ উদযাপিত হচ্ছে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পদার্পণের আনন্দোৎসব। বিশাল এই আয়োজনের আড়ালে আজ লিভার চিকিৎসায় আরো একটি নবযুগে পদার্পণ করলো বাংলাদেশ।

বাংলাদেশে শুরু হল লিভার বিলিরুবিন ডায়ালাইসিস। যে ইউনিক পদ্ধতিতে লিভার বিলিরুবিন ডায়ালাইসিস হল তা যে শুধু বাংলাদেশই প্রথম তাই নয় সারা পৃথিবীতেই প্রথম। কিডনি হিমোডায়ালাইসিসের মত বিশেষ মেশিনে বিশেষ কিট এবং বিশেষ কলাম ব্যবহার করা হয়েছে। বিশেষ কলামের ছাকনির ভেতর দিয়ে রুগীর রক্ত প্রবাহিত করে প্লাজমা থেকে বিলিরুবিন আলাদা করে ফেলা হয়েছে। তাৎক্ষণিক ভাবেই রুগী ভাল বোধ করা শুরু করেছেন।

 

জন্ডিসে দীর্ঘমেয়াদে ভুগতে থাকা কিংবা লিভার ফেইলিউর-এর পর যে সকল রুগীর জন্ডিস প্রচলিত চিকিৎসা পদ্ধতি ব্যবহার করেও কমানো সম্ভব হচ্ছে না তাদের ক্ষেত্রে লিভার বিলিরুবিন ডায়ালাইসিস হতে পারে জীবন রক্ষাকারী চিকিৎসা।

উন্নত বিশ্বে যেখানে মার্স ডায়ালাইসিস মেশিনে প্রচুর এলবুমিন ব্যবহার করে ডায়ালাইসিস করা হয় সেখানে নতুন এ পদ্ধতিতে এলবুমিন ব্যবহার না করেই লিভার বিলিরুবিন ডায়ালাইসিস সম্ভব হয়েছে। খরচ কমিয়ে দিয়েছে এক দশমাংশ।

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়-এর লিভার বিভাগের অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল স্যার লিভার বিলিরুবিন ডায়ালাইসিসের নতুন এ পদ্ধতির উদ্ভাবক। এখানে সম্পূর্ণ নতুন বৈজ্ঞানিক তত্ব ব্যবহার করা হয়েছে। অধ্যাপক মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল স্যারের সাথে নতুন এ পদ্ধতিতে ভূমিকা রাখতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়-এর ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা.আসাদুল ইসলাম, ডা. আশরাফুল হক, ডা. শেখ আনিসুল হক-এর সহযোগীতা এবং উদ্যম প্রশংসার দাবী রাখে।

 

 

২০১৫ তে লিভার চিকিৎসায় এইচ ভি পি জি, ট্রান্সজুগুলার লিভার বায়োপ্সি, ২০১৬ তে লিভার ক্যান্সারে টেইস শুরু করেছি আমরা। এ পর্যন্ত ৮৫টি রুগীর টেইস করেছি। ২০১৭ তে লিভার সিরোসিসে স্টেম সেল চিকিৎসা দিয়েছি আমরা। স্টেম সেল দেয়া হয়েছে ৪৫ টি লিভার ডিকমপেনসেশন হয়ে যাওয়া রুগীকে। খুব আশাব্যঞ্জক ফল পেয়েছি আমরা।

অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল স্যারের অভিভাবকত্বে আমরা একটি টিম হিসেবে দাঁড়াতে পেরেছি। অন্য টিম মেম্বাররা হলেন ডা. আব্দুর রহিম, ডা. মো. আশরাফুল আলম, ডা. মোহাম্মদ ফয়েজ আহমেদ খন্দকার এবং ডা. আহমেদ লুৎফুল মোবেন। এনেস্থিসিয়ায় ডা. জহুরুল হক এবং ডা. একরামুল হক সজল বিশাল ভূমিকা রেখে চলেছেন।

২২ মার্চ ২০১৮ তে প্রথম লিভার বিলিরুবিন ডায়ালাইসিস। অনেক পথ পাড়ি দিয়েছি আমরা। আমাদের যেতে হবে আরো বহুদূর। যদি আপনি স্বপ্নের একটি টিম গড়তে পারেন তবে আপনারাও যাবেন মেলা দূর। বহুদূর।

 

Ishrat Jahan Mouri

Institution : University dental college Working as feature writer bdnews24.com Memeber at DOridro charity foundation

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

উদ্বোধন হচ্ছে "সন্ধানী কেন্দ্রীয় রক্ত পরিসঞ্চালন কেন্দ্র"

Sat Apr 14 , 2018
  আগামী ১৬ এপ্রিল ২০১৮ সন্ধানী ভবনে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে  “সন্ধানী কেন্দ্রীয় রক্ত পরিসঞ্চালন কেন্দ্র”।উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ডা. দীপু মনি, এম.পি। সন্ধানী, মেডিকেল ও ডেন্টাল ছাত্রছাত্রীদের পরিচালিত একটি জাতীয় পর্যায়ের প্রতিষ্ঠান। ১৯৭৮ সালের ২ নভেম্বর প্রথমবারের মত স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী আয়োজনের মাধ্যমে সন্ধানী বাংলাদেশে স্বেচ্ছায় রক্তদানের সামাজিক আন্দোলন শুরু […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট