• ক্যারিয়ার

November 10, 2018 9:49 am

প্রকাশকঃ

রিসার্চে বা পাবলিক হেলথে বিদেশে উচ্চশিক্ষা: উপযুক্ত সময় কখন?

যারা রিসার্চে বা পাবলিক হেলথে ক্যারিয়ার করছেন বা করার জন্য আগ্রহী, তাদের প্রায় সবাইকেই কোনো একটা সময়ে বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি জমাতে হয় – সেটা মাস্টার্স এর জন্য হোক বা পিএইচডির জন্য হোক। কিন্তু বিদেশে পড়তে আসার জন্য উপযুক্ত সময় কখন? ক্যারিয়ারের শুরুতে নাকি মাঝামাঝি?

এই প্রশ্নের সহজ এবং সত্য উত্তর হচ্ছে উপযুক্ত সময় সবার জন্যই আপেক্ষিক এবং সেটি নির্ভর করে অনেক কিছুর উপর। আপনার জন্য যেটি উপযুক্ত সময়, অন্য কারো জন্য হয়তো তা নয়। তাই উপযুক্ত সময়কে ছকে বেঁধে ফেলে কোনো ফর্মুলা তৈরী করা সম্ভব নয়। তারপরও ক্যারিয়ার এর ধরণের উপর ভিত্তি করে বিদেশে উচ্চশিক্ষার উপযুক্ত সময় নিয়ে আজকে আলোচনা করবো।

বাংলাদেশে পাবলিক হেলথে এখন যারা বড় বড় গবেষক বা ম্যানেজার, তাদের প্রায় সবাই প্রথমে বেশ কিছুটা সময় দেশে ক্যারিয়ার গড়েছেন। যেমন ধরুন আইসিডিডিআরবি’র শামস স্যার ১৯৮৬ সালের দিকে পাবলিক হেলথে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। তিনি এমপিএইচ করতে জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটি তে গিয়েছেন ১৯৯২ সালে, অর্থাৎ ছয় বছর পর। একইভাবে আপনি যদি ব্র্যাক বা অন্যান্য NGO গুলোর ডিরেক্টরদেরকে দেখেন, তারাও প্রথম জীবনে অনেকখানি সময় বাংলাদেশে ক্যারিয়ার গড়েছেন। তারপর বাইরে পড়াশুনা করার জন্য এসেছেন. পড়াশুনা শেষ করে আবার দেশে গিয়ে কাজ করেছেন।

কিন্তু বর্তমানে এই ধারা অনেকখানি বদলে গিয়েছে। অনেকেই এখন খুব তাড়াতাড়ি দেশের বাইরে পড়ার জন্য পাড়ি জমাচ্ছেন। যেমন আমি ২০১২ সালের নভেম্বর এ ক্যারিয়ার শুরু করে ২০১৪ সালের আগস্টে দেশের বাইরে চলে আসি। আমার মতন অনেকেই দেশে বেশিদিন ক্যারিয়ার না করেই বাইরে পাড়ি জমাচ্ছেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে কোন এপ্রোচ তা ভালো? আপনার কোনটা করা উচিত?

আবারও বলছি এটি একটি আপেক্ষিক বিষয়, তাই পরম সঠিক উত্তর বলে কিছু নেই। কিন্তু তারপরও এইখানে ভেবে দেখার বিষয় আছে এবং একটা মোটামুটি সঠিক সমাধানও রয়েছে। ভেবে দেখুন আপনার আলটিমেট গোল কি – আপনি কি দেশে ক্যারিয়ার করতে চান, নাকি বাইরে সেটেল হয়ে সেখানে ক্যারিয়ার করতে চান? আপনি যেখানে ক্যারিয়ার করতে চান, সেখানে যত বেশি টাইম দিবেন ততই তা আপনার ক্যারিয়ারএর জন্য ভালো হবে। যদি আপনার চান দেশে ক্যারিয়ার করতে, তাহলে দেশে ক্যারিয়ারএর জন্য সময় দেয়ার কোনো বিকল্প নেই। আবার বাইরে ক্যারিয়ার করতে হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনাকে তাদের সিস্টেমে আসতে হবে। এই ফর্মুলার ব্যাতিক্রম থাকলেও, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এটি প্রযোজ্য।

তাই চিন্তা করুন আপনার ক্যারিয়ার গোল নিয়ে। ব্রাউনীয় গতির মতো ইতস্তত বিক্ষিপ্ত ক্যারিয়ার করার চেয়ে সঠিক লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে গেলে সফলতার সম্ভবনা অনেক বেশি।

লেখক: Shajedur Rahman Shawon
PhD researcher
University of Oxford

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ উচ্চশিক্ষা, পাবলিক হেলথ, রিসার্চ,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.