রামপুরায় ঝটিকা অভিযান চালিয়ে ভুয়া শিশু পরামর্শক এবং তার সহযোগীকে আটক করেছে র‍্যাব!

রাজধানীর পূর্ব রামপুরায় ঝটিকা অভিযান চালিয়ে ভুয়া শিশু পরামর্শক এবং তার সহযোগীকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৩) সদস্যরা।

আটককৃত দুই ব্যক্তি হলেন- আব্দুল কাইয়ুম (৩০) এবং মোখলেসুর রহমান (৪৫)।

সোমবার দুপুর পৌনে ২টায় র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার পাশার নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

এ সময় পূর্ব রামপুরা ৩৩৪/৩-এইচ আব্দুল কাইয়ুম শিশু পরামর্শ কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল কাইয়ুম তার এমবিবিএস সনদ এবং চিকিৎসাসেবা দেয়ার অনুমতিপত্র দেখাতে না পারায় তাকে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং ২ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। একই সঙ্গে অবৈধ কাজে সহযোগিতা করার অপরাধে মোখলেসুর রহমানকেও ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

grap_sm_499993641-300x165

ভুয়া চিকিৎসক আব্দুল কাইয়ুম জানান, তিনি প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি থেকে পাঁচ বছর মেয়াদী এমবিবিএস কোর্স করে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি হাসপাতাল থেকে এক বছরের ইন্টার্নি করেন।
তবে তিনি জিজ্ঞাসাবাদে তার সার্টিফিকেট ভুয়া বলে স্বীকার করেন। তিনি জানান, পাঁচ বছরের এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি হলেও প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে কোন ক্লাস হয় না। পড়াশুনা ছাড়াই সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। তিনি পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে সেখান থেকে ভুয়া সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেছেন।

ওয়েব টিম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

ড্রিল মেশিন দিয়ে চিকিৎসা!

Fri Aug 1 , 2014
অষ্টম শ্রেণী পাস তিনি। কয়েক বছর আগেও মাছের ব্যবসা করতেন খুলনায়। নাম রতন কৃষ্ণ মজুমদার (৪৩)। তিনিই দিব্যি একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন। হাসপাতালের নাম ন্যাশনাল কেয়ার জেনারেল হাসপাতাল। হাসপাতালটি তার ভায়রা পাইক চন্দ্র দাস (৪২)-এর। এজন্য চিকিৎসাবিদ্যায় পড়াশোনা না করেও চিকিৎসক বনেছিলেন রতন। যে ড্রিল মেশিন দিয়ে পাকা দেয়াল ফুটো […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট