ময়মনসিংহ মেডিকেলে সহপাঠীদের সাথে আড্ডায় মাতেন ভুটান প্রধানমন্ত্রী ডা. লোটে শেরিং

প্রায় তিন দশক পর পুরোনো বন্ধুদের দেখে আবেগে আপ্লুত হলেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং। আর ঘটনাটা ঘটল ময়মনসিংহে নিজের সাবেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ক্যাম্পাসে। এত বছর পর ফিরে বন্ধু, সহপাঠী আর শিক্ষকদের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন তিনি।

বাংলা নববর্ষের দিন মেডিকেল কলেজ মিলনায়তনে আয়োজিত বিশেষ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে একসময়ের সহপাঠীদের কাছে পেয়ে মেলে ধরেন স্মৃতির ঝাঁপি। পাশাপাশি বসে আড্ডা দেন। ফিরে যান ১৯৯৫ সাল থেকে এই মেডিকেল কলেজে শুরু করা ছাত্রজীবনের দিনগুলোতে। আর বর্তমান-সাবেক শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সুধীজনদের সমাবেশে বাংলায় বলেন, ‘ভালো চিকিৎসক হতে হলে আগে একটা ভালো মানুষ হইতে হবে ভাই। মাঠ ভালো না হলে যা-ই রোপি (রোপণ করি) না কেন, কিছু উঠবে না সেখানে।’

বেলা ১১টার দিকে লোটে শেরিং হেলিকপ্টারে করে ময়মনসিংহে পৌঁছান। এরপর তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ মিলনায়তনে যান। বর্তমান শিক্ষার্থীসহ সবার উদ্দেশে বক্তব্য দেন। পরে বন্ধু-সহপাঠীদের সঙ্গে কিছুটা সময় কাটান। রাষ্ট্রীয় সফরে আসা ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর জন্য কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থা থাকলেও তিনি বন্ধুদের সঙ্গে আন্তরিক পরিবেশেই সময় কাটিয়েছেন।

ওয়েব টিম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

বাংলাদেশের চিকিৎসক থেকে ভুটানের প্রধান মন্ত্রী হওয়ার গল্প

Sun Apr 14 , 2019
ডা. লোটে শেরিং ভুটানের প্রধানমন্ত্রী। তিনি বাংলাদেশের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ছাত্র। বাংলাদেশ থেকেই এমবিবিএস ও এফসিপিএস করে দেশে ফিরে গিয়ে ২০১৩ সালে রাজনীতিতে সক্রিয় হন। তিনি মধ্য-বামপন্থী দল ডরুক নাইয়ামরুপ শোগপা (ডিএনটি) যোগদান করেন। মানুষকে নিয়ে ভাবনা থেকে তার রাজনীতিতে আসা বলে জানান শেরিং। ২০১৮ সালে দেশটির পার্লামেন্টের ৪৭ আসনের মধ্যে […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট