• জন সচেতনতা

March 4, 2019 7:28 pm

প্রকাশকঃ


আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা নিয়ে বাংলাদেশের চিকিৎসকদের উচ্চ প্রশংসা করেছেন ভারতের প্রখ্যাত কার্ডিয়াক সার্জন দেবী প্রসাদ শেঠী।

সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় তার কাছ থেকে এই প্রশংসা আসে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম।

দেবী শেঠীর সঙ্গে পরামর্শ করে ঢাকার বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা ওবায়দুল কাদেরকে বিদেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত দিলে সোমবার বিকালেই তাকে নিয়ে যাওয়া হয় সিঙ্গাপুরে।

হৃদরোগে আক্রান্ত কাদেরকে দেখতে দুপুরে ঢাকায় আসেন দেবী শেঠী। বিএসএমএমইউতে কাদেরকে দেখে আসার পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যান ভারতের এনএইচ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ইন্টারন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব কার্ডিয়াক সায়েন্সের প্রতিষ্ঠাতা।

ইহসানুল করিম বলেন, “দেবী শেঠী বলেছেন, বাংলাদেশের ডাক্তাররা খুবই ভালোভাবে চিকিৎসা করেছেন, উন্নয়নশীল দেশে এর থেকে বেশি আশা করা যায় না।”

ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার জন্য দ্রুত বাংলাদেশে আসায় দেবী শেঠীকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, “ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার বিষয়ে আপনার মতামত জানার জন্য অপেক্ষা করছি।”

দেবী শেঠী বলেন, “যখনই আপনি ডাকবেন, তখনই আমি চলে আসব।”

বাংলাদেশের মেডিকেল শিক্ষা নিয়েও দেবী শেঠীর সঙ্গে আলোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

তার সরকারের সময় বিএসএমএমইউকে দেশের প্রথম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে আরও দুটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে । 

শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করে ভারতীয় এই চিকিৎসক বলেন, “গত কয়েক বছরে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নতি হয়েছ উল্লেখযোগ্যভাবে।”

ডা. দেবী শেঠীর ১৫ হাজারের বেশি অস্ত্রোপচার করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। স্বল্প খরচে হৃদরোগের চিকিৎসা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়ে আলোচিত এই চিকিৎসককে ২০১২ সালে পদ্মভূষণ খেতাবে ভূষিত করে ভারত সরকার।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেবী শেঠীর সৌজন্য সাক্ষাতে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ/বিডিনিউজ২৪

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ দেবী প্রসাদ শেঠী,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.