প্রথমবারের মতো সরকারি হাসপাতালে পাঁজরের হাড় না কেটে হার্টের অপারেশন

২৫ আগস্ট ২০১৯ রবিবার প্রথমবারের মতো জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল (এনআইসিভিডি) বুকের হাড় না কেটে সফলভাবে হৃদযন্ত্রের অস্ত্রোপচার করতে সক্ষম হয়েছেন বাংলাদেশের চিকিৎসকরা। এই প্রথম বাংলাদেশে এই পদ্ধতিতে কোনো সরকারি হাসপাতালে অপারেশন করা হলো।

অস্ত্রোপচারের মুহূর্তে

পাবনার সুজানগর থানায় বসবাসরত ১২ বছর বয়সী শিশু নূপুর হৃদপিন্ডে ছিদ্র নিয়েই জন্মগ্রহণ করে। তার হৃদপিণ্ডের এই ছিদ্র বন্ধ করা হয় মিনিমাল ইনভ্যাসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি (এমআইসিএস) পদ্ধতিতে। এই পদ্ধতিতে বুক না কেটে ছোট ছোট ছিদ্রের মাধ্যমে হৃদযন্ত্রের অস্ত্রোপচার করা হয়।

ডা. আশরাফুল হক সিয়ামের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের একটি চিকিৎসক দল সফলভাবে এই অস্ত্রোপচার করেন। এতে সময় লাগে প্রায় আড়াই ঘণ্টা। এই কৃতি চিকিৎসকদের মধ্যে ছিলেন অধ্যাপক ডাঃ আফজালুর রহমান, অধ্যাপক ডাঃ ফারুক আহমেদ, ডাঃ প্রশান্ত কুমার চান্দা, ডাঃ জুলফিকার লেলিন, ডাঃ আবুল আজাদ, ডাঃ কাজল প্রমুখ।

ডাঃ আশরাফুল হক সিয়াম এবং নূপুর
নেপথ্যের চিকিৎসকগণ

অপারেশনের যন্ত্রপাতিগুলোর জন্য বিশেষ বরাদ্দ দিয়েছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর তাই ওপেন হার্ট সার্জারির বিকল্প এই অস্ত্রোপচারে খরচ পড়েছে মাত্র ৫ হাজার টাকা। পৃথিবীর উন্নত কিছু দেশের অল্পসংখ্যক হাসপাতালেই এই পদ্ধতিতে অস্ত্রোপচার করা হয়ে থাকে।

প্ল্যাটফর্ম ফিচার রাইটার:
সামিউন ফাতীহা
শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ, গাজীপুর

Platform

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

জানা-অজানা হাইমেন (HYMEN)

Tue Aug 27 , 2019
নারীদেহে যোনিমুখে যে পাতলা পর্দা থাকে, সেটাকে হাইমেন বা বাংলায় সতীচ্ছেদ বলা হয়। প্রাচীন ধারণা অনুযায়ী এই পর্দা অটুট থাকলে নারী কুমারী এবং পর্দা ছিঁড়ে গেছে মানে নারী অসতী। এমনকি এই একবিংশ শতকে এসেও বিয়ের প্রথম রাতে রক্তাক্ত বিছানা দিয়ে নারীর সতীত্ব বিচার করে উপমহাদেশের অনেক মানুষ। এটি শতভাগ ভুল […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট