ডাক্তার বনাম সাংবাদিক দ্বন্দ্বঃ অন্তরালে কি ঘটছে…?

নিউজটি শেয়ার করুন

দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থায় আজ এক অশনি সংকেত বিরাজ করছে। সাংবাদ মাধ্যম বলছে, ভুল চিকিৎসা এবং ডাক্তারের অবহেলায় রুগীর মৃত্যু, আর সাধারণ জনগন সেই কথা গিলে, ভাংচুর করছে হাসপাতাল, শারীরিক ভাবে জখম করছে চিকিৎসকদের। কিন্তু কেউ কি একবার চিন্তা করে দেখেছেন, আসল ঘটনাটা কি? কেউ কি একবার চিন্তা করে দেখেছেন যে, এর মধ্যে কি গভীর এক ষড়যন্ত্র কাজ করছে?

imagesমালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক, ইন্ডিয়াসহ আরও বেশ কিছু দেশে শুরু হয়েছে মেডিকেল ট্যুরিজম ব্যবসা। এই সব দেশের বড় বড় হাসপাতাল এবং কলকাতার খুবই নিম্নমানের কিছু হাসপাতালগুলোর এজেণ্ট অফিস রয়েছে বাংলাদেশে। যেমনঃ সিঙ্গাপুর এ্যাপোলো, বামরুনগ্রাদ, কুইন্স এলিজাবেদ, এমন আরও অনেক নামকরা হাসপাতালগুলোর এজেণ্ট অফিস রয়েছে বাংলাদেশে। এই সব হাসপাতালের এজেণ্ট অফিস গুলো বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমগুলোতে মোটা অংকের অর্থায়ন করছে, যেন তারা বাংলাদেশের চিকিৎসা এবং ডাঃদের সর্ম্পকে নেগেটিভ কথা প্রচার করে। সত্যি কথা বলতে কি, এই সব নামকরা হাসপাতালের এজেণ্টগুলো কি পরিমাণ অর্থ আয় করছে, তা আমাদের অনুমানেরও বাইরে। একজন এজেণ্ট যদি, বছরে একজন পেশেণ্টকে বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে পাঠায়, তবে সেখান থেকে সে যা কমিশন পায়, সমস্ত খরচ-খরচা বাদ দিয়ে তার পকেটে ঢোকে প্রায় ২০লক্ষ টাকা। আরও মজার বিষয় হচ্ছে, আমাদের দেশের নামকরা কিছু সংবাদমাধ্যম এই সব নামকরা বিদেশী হাসপাতালগুলোর সাথে জড়িত, দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার নেতিবাচক উপস্থাপনের পাশাপাশি এসব হাসপাতালের চটকদার বিজ্ঞাপন প্রচারে ব্যস্ত ।

এখানে দুই ধরণের দালাল চক্র কাজ করছে। একদলের টার্গেট উচ্চবিত্ত, যাদের কাছে টাকা কোনো ব্যাপার না। আর এরাই এই সব দালালদের (এজেণ্টদের) মাধ্যমে পাড়ি জমাচ্ছে বামরুনগ্রাদ, কুইন্স এলিজাবেথ হাসপাতালে। আর একদল দালালের টার্গেট মধ্যবিত্ত। তারা, এই সব রুগীদেরকে নিয়ে যাচ্ছে, কলকাতার নিম্নমানের কিছু হাসপাতালে।

1609827_10202696674611919_4706608825397803553_nএকটা বিষয় কি খেয়াল করেছেন, যেখানেই রব উঠছে, ভুল চিকিৎসায় অথবা ডাঃরের অবহেলায় রুগীর মৃত্যু, সেখানে আগে থেকেই সংবাদকর্মী উপস্থিত ছিলো। আর এই সব দুর্নীতিগ্রস্থ সাংবাদিকদের উস্কানিতে, সাধারণ জনগন ক্ষিপ্ত হয়ে, হাসপাতাল ভাংচুর করছে, ডাঃকে শারীরিক ভাবে জখম করছে। আর ডাঃরাও এত প্রতিবাদে আন্দোলন করছে। কিন্তু সাধারণ জনগন কি একবার চিন্তা করে দেখেছেন, এই আগ্রাসী কর্মকান্ডে আপনাদের কতোটুকু লাভ হচ্ছে?

লাভতো হচ্ছেই না বরঞ্চ ক্ষতি হচ্ছে। আপনাদেরকে দেশের চিকিৎসাব্যবস্থা এবং চিকিৎসকদের উপর ক্ষেপিয়ে দিয়ে এক শ্রেণীর লোক নিজেদের পকেট ভারী করছে। আর আপনাদের কর্মকান্ডে নাজেহাল হয়ে ডাক্তাররা, আপনাদেরকে চিকিৎসা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করছেন। সাধারণ জনগনকে বলছি, ভাই আপনারা একটা বিষয় কেনো বুঝতে পারছেন না, ডাক্তারদেরকে আঘাত করে আপনাদের কোনো লাভ হচ্ছে না। এতে করে আপনি চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আর ডাক্তারদেরও খুব বেশী ক্ষতি হবে না। তারা এখন দেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি জমাবে।

এখন, এদেশের সাধারণ জনগনকেই চিন্তা করে বের করতে হবে, আপনারা দেশের চিকিৎসাব্যবস্থাকে কিছু কর্পোরেট দালালদের হাতে তুলে দেবেন নাকি দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থাকে নিজেদের হাতেই রাখবেন???

লেখকঃ ডাঃ শামীম রেজা

 

ফারহান রিজভী

2 thoughts on “ডাক্তার বনাম সাংবাদিক দ্বন্দ্বঃ অন্তরালে কি ঘটছে…?

  1. Understood the point. But if a clinic and the doctors really take care the patients, then nobody gets the chance to defame the doctors. May be we need to improve patient management at clinics and hospitals and doctors should play active role to stop any conspiracy against them.

  2. হজ্ব ২০১৫, সরকারী মেডিকেল টিমে একাধিক বেসরকারি চিকিৎসক ? সরকারী চিকিৎসকদের deprived করে বেসরকারি চিকিৎসক অন্তভূক্তি কেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল : প্রচারনার অভাব

Sat May 17 , 2014
ঢাকার অভিজাত এলাকায় হোটেল রেডিসন এর ঠিক উল্টো দিকে অার্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজের গা ঘেষে গড়ে উঠেছে চকচকে এক বিশাল ভবন। এখানে মাত্র ১০ টাকায় উন্নতমানের চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়। হাসপাতালটির নাম কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল। কিন্তু এ হাসপাতালটিতে রোগী আসেনা তেমন কারন এর যথাযথ প্রচারের অভাব । এখানে মাত্র ১০ […]

Platform of Medical & Dental Society

Platform is a non-profit voluntary group of Bangladeshi doctors, medical and dental students, working to preserve doctors right and help them about career and other sectors by bringing out the positives, prospects & opportunities regarding health sector. It is a voluntary effort to build a positive Bangladesh by improving our health sector and motivating the doctors through positive thinking and doing. Platform started its journey on September 26, 2013.

Organization portfolio:
Click here for details
Platform Logo