• প্রতিবেদন

October 23, 2018 2:30 pm

প্রকাশকঃ

এম,আব্দুর রহিম মেডিকেলে(সাবেক দিনাজপুর মেডিকেল) ২০ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে আহত অবস্থায় ভর্তি হয় ২৫বছরের এক যুবক।

তার হিস্ট্রি ও এক্সামিনেশন করে ডাক্তাররা জানতে পারেন তার ব্রাকিয়াল আর্টারি,মিডিয়ান ও আলনার নার্ভ পুরোটাই কেটে গেছে(হাতের রগ)।

অনেক রক্তক্ষরণের কারণে রোগী হাইপোভলিউমিক শকে চলে গিয়েছিল।হেমোডাইনামিক্যালি স্ট্যাবল করার পরে রোগী ও রোগীর আত্মীয় স্বজনকে পুরো বিষয়টা বুঝিয়ে বলেন ডাক্তারগণ।রক্তনালি জোড়া দেয়ার জন্য বিশেষায়িত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়,না নিতে পারলে হাতটাকে হয়ত কোন ভাবেই বাঁচানো যাবে না।রোগী অনেক গরীব হওয়ার কারণে তারা অন্য কোথাও যেতে অপারগতা প্রকাশ করে।ফলে ডাক্তারগণ রোগীর স্বজনদের সম্মতি নিয়ে রাত ৯টায় অপারেশন শুরু করেন।
ভাস্কুলার রিপেয়ার (রক্তনালী জোড়া দেওয়া) করার মত পর্যাপ্ত সুবিধা এবং যন্ত্রপাতি(যেমনঃ বুলডগ ক্লাম্প,ডায়ালেটর, হেপারিন নিডল ইত্যাদি)না থাকা সত্ত্বেও প্রায় ৩ঘন্টা অপারেশন করে সফল হন ডাক্তারগণ। অপারেশনটি কার্যকর করতে নিরলস শ্রম দিয়েছেন ডা.মোঃ আব্দুল্লাহ আল-মারুফ।
সহযোগী হিসেবে ছিলেন ডা. আদনান মাহফুজ সৌরভ এবং ডা.মোঃ মাহমুদুল আমিন হামিম।

তথ্যসূত্র: ডা মোঃ আব্দুল্লাহ আল-মারুফ
ডি- অর্থো রেসিডেন্ট, এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল( সাবেক দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল)।

প্ল্যাটফর্ম ফিচার রাইটারঃ উর্বী সারাফ আনিকা
৫ম বর্ষ
রংপুর কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ, ভাসকুলার সার্জারি,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.