• স্কলারশিপ

December 5, 2018 1:37 pm

প্রকাশকঃ

অস্ট্রিয়া ইউরোপের বেশ ধনী একটা দেশ, শিল্পের নগরী ভিয়েনা যার রাজধানী। দেশটা মোজার্টের জন্য খ্যাত হলেও, বিজ্ঞানেও কম না কিন্ত। Doppler, Boltzmann, Schrodinger দের দেশ বলে কথা। আমরাও অবশ্য পিছিয়ে নাই! আমাদের দেশীয় একজন ঐখানে বেশ বিখ্যাত, উনি কিন্ত বেশ বড়লোক মানুষ, তাই নাম বলা ঠিক হবে না।

যাই হোক, জার্মানির ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক ইনস্টিটিউট, আর সুইজারল্যান্ডের ETH Zurich এর আদলে ২০০৯ সালে অস্ট্রিয়ান সরকার Institute of Science and Technology (IST) Austria স্থাপন করে। অস্ট্রিয়ান সরকার এই প্রতিষ্ঠানকে আগামী ১০ বছরে বিশ্বের প্রথম সারি একটা গবেষণা প্রতিষ্ঠান হিসেবে তৈরী করার জন্য এখন পানির মত মাল্টি মিলিয়ন ডলার R&D তে ইনভেস্ট করতেছে। এজন্য IST Fully funded PhD scholarship দিচ্ছে। আগামী ১০ বছরে এই প্রতিষ্ঠান এর স্থান যে কোথায় হবে, তা কল্পনা করতে পারতেছি আমি।
পিএইচডির ফান্ডিং বিস্তারিত:
————————————
IST এর সব পিএইচডি ক্যান্ডিডেট ফুল ফান্ডিং পায়। একজনও বাদ যায় না। হেলথ ইন্সুরেন্স, আন্তর্জাতিক কনফারেন্স ট্রাভেল খরচের পুরোটা সহ ইত্যাদি আরো সুবিধা তো আছেই। IST scholar দের কিছু ফান্ডিং আসে European Union’s Horizon 2020 Research and innovation program এবং EU Marie Skłodowska-Curie grant এর প্রজেক্ট গুলা থেকে ।
একজন পিএইচডি ক্যান্ডিডেট মাসে প্রায় ২৫০০ ইউরো পায় (প্রায় আড়াই লাখ টাকা)। আর জার্মানির মত IST তেও কোন টিউশন ফি নেই! সো গেজ হোয়াট, লিভিং কস্ট বাদ দিলে বাকি পুরাটাই সেভিংস করতে পারবেন।
এখন আসি কারা এপ্লাই করতে পারবে? এবং কোন কোন সাবজেক্টের?
—————————————————————————————
অস্ট্রেলিয়া, ইউএস, কানাডার ফেসবুক গ্রূপ গুলাতে ইঞ্জিনিয়ারদের ফান্ডিং পেতে দেখে দেখে ন্যাচারাল সায়েন্সের ছাত্র-ছাত্রীরা হয়তো অনেকেই মনে মনে আফসোস করেন। এই পোস্ট পড়ার পরে আপনারা বেশ খুশিই হবেন। আপনি যদি নিচের কোন সাবজেক্টের ছাত্র-ছাত্রী হন তবে এপ্লাই করতে পারবেন পিএইচডি স্কলারশিপের জন্য। IST তে পিএইচডির আবেদনের জন্য মাস্টার্স থাকা বাধ্যতামূলক নয়। আপনি যদি ব্যাচেলর কমপ্লিট করে থাকেন, এবং কিছু রিলেটেড রিসার্চ অভিজ্ঞতা থেকে থাকে, তাহলেই আবেদন করতে পারবেন। ওখানে পিএইচডির সময় ৪-৫ বছর নির্ভর করবে আপনার প্রগ্রেস ও ব্যাকগ্রাউন্ডের উপর এবং পুরো সময়সীমাতেই ফুল ফান্ডিং সাপোর্ট পাবেন।
বিশেষ করে ম্যাথ/ফিজিক্স/থিওরিটিক্যাল কম্পিউটার সায়েন্স পড়তে উৎসাহের জন্য female ক্যান্ডিডেটদের জন্য এই তিন সাবজেক্টে IST মেয়েদের প্রায়োরিটি দিতে পছন্দ করে। কম্পিউটার সায়েন্স/তাই ম্যাথ/ফিজিক্সের আপুরা এপ্লাই করুন বেশি বেশি। থিওরিটিক্যাল কম্পিউটার সায়েন্স কিন্তু কোডিং না, ঐটা পুরাই ম্যাথম্যাটিক্স।
এনিওয়ে, নিচের সাবজেক্ট গুলিতে ব্যাচেলর হোল্ডার যে কেউ পিএইচডি স্কলারশিপের এপ্লাই করতে পারবেন IST তে, মাস্টার্স থাকা বাধ্যতামূলক নয়। সেক্ষেত্রে আপনার পিএইচডির একটু সময় লাগবে- ৫ বছরের মত।
১. বায়োলজি/মাইক্রোবায়োলজি/বায়োকেমিস্ট্রি/জেনেটিক্স
২. ফিজিক্স
৩. ম্যাথমেটিক্স
৪. নিউরোসায়েন্স
৫. কম্পিউটার সায়েন্স (থিওরিটিক্যাল)
৬. ড্যাটা সায়েন্স/মেশিন লার্নিং
ফিল্ড অব রিসার্চ:
———————-
কোন প্রফেসর কোন ফিল্ডে কাজ করেন, তার বায়োগ্রাফি, পাবলিকেশন লিস্ট ঘাটুন। নিজের সাথে মিলে গেলে সরাসরি IST তে অনলাইনে পিএইচডির জন্য এপ্লাই করতে পারেন। ফান্ডিং ডিসিশন সেন্ট্রালি হয়। তাই প্রফেসর কে ইমেল দেয়া বাধ্যতামূলক নয়। কিন্ত দিতে তো ক্ষতি নেই। যদি আপনাকে পছন্দ হয় প্রফেসরের!
IST Graduate School এর প্রফেসরদের রিসার্চ ফিল্ডগুলা দেখার জন্য নিচের লিংক গুলা ভিজিট করুন।
১. বায়োলজি/মাইক্রোবায়োলজি/বায়োকেমিস্ট্রি (https://phd.pages.ist.ac.at/biology/)
২. ফিজিক্স (https://phd.pages.ist.ac.at/physics/)
৩. ম্যাথমেটিক্স (https://phd.pages.ist.ac.at/mathematics/)
৪. নিউরোসায়েন্স (https://phd.pages.ist.ac.at/neuroscience/)
৫. কম্পিউটার সায়েন্স (থিওরিটিক্যাল) (https://phd.pages.ist.ac.at/computer-science/)
৬. ড্যাটা সায়েন্স/মেশিন লার্নিং (https://phd.pages.ist.ac.at/data-science-scientific-computing/)
গুরুত্ত্বপুর্ণ তারিখ জেনে রাখুন:
————————————–
সেপ্টেম্বর ২০১৯ Fall সেশনের জন্য অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ ৮ জানুযারী ২০১৯।
আবেদনের লিংক: https://apply.app.ist.ac.at/users/login
আপনার আবেদন গ্রহণ করা হলে মার্চ ২০১৯ এ ইন্টারভিউ হবে, এপ্রিলেই আপনাকে IST এডমিশনের ফাইনাল সিদ্ধান্ত জানায় দেবে । এডমিশন পেলে ফান্ড পাওয়াও ১০০% নিশ্চিত।
কি কি কাগজ পত্র লাগবে:
———————————
কোন হার্ড কপি পাঠাতে হবে না। সম্পূর্ণ অনলাইন নির্ভর এপ্লিকেশন।
১. সিভি
২. SOP (স্টেটমেন্ট অব পারপাস) – এইটা সবচেয়ে গুরুত্তপুর্ন । আপনাকে আপনার SOP দিয়েই গ্রাজুয়েট স্কুল কে কনভিন্স করতে হবে কেনো আপনাকে তারা সিলেক্ট করবে। আপনার দক্ষতা/রিসার্চ অভিজ্ঞতা স্পেসিফিক উদাহরণ দিয়ে লিখবেন। জেনেরিক বাক্য একদম চলবে না। আপনি ইন্টারেস্টেড এমন অন্তত তিনটা IST রিসার্চ গ্রূপের উল্লেখ SOP এ করতে হবে। জি হ্যা ঠিকই পড়েছেন তিনটা রিসার্চ গ্রূপের নাম অন্তত পক্ষে।
৩. ট্রান্সক্রিপ্ট এবং সার্টিফিকেট (নোটারি করার দরকার নাই)

৪. তিনটা রিকমেন্ডেশন লেটার (IST নন-একাডেমিক পজিশন হোল্ডারের যেমন ম্যানেজার ইত্যাদির রিকমেন্ডেশন লেটার একটার বেশি এলাউ করবে না)। আমি বলবো, যদি আপনার আবেদন স্ট্রং করতে চান অবশ্যই তিনটাই একাডেমিক রিকমেন্ডেশন দেবেন সেটা প্রফেসর, এসিস্টেন্ট প্রফেসর, বা পোস্ট-ডক্টরাল রিসার্চার যাদের সাথে কাজ করেছেন তাদের লেটারও গ্রহন করা হবে। রিকোমেন্ড যে করবেন তাকে আগে থেকে বলে রাখবেন, কারণ তাদের ইমেইলের লিংক থেকে তাদেরকেই লেটার আপলোড করতে হবে। ক্যান্ডিডেটরা নিজেরা আপলোড করলে আবেদন বাতিল হবে।
৫. IELTS/TOEFL লাগবে না! জি ঠিকই পড়েছেন! IST তে কোর্স সব ইংলিশে হলেও IELTS/TOEFL স্কোর দেয়া বাধ্যতামূলক নয় এপ্লিকেশনে। যদি আপনার IELTS/TOEFLথাকে, তাহলে এডিশনাল ডকুমেন্ট হিসেবে সাবমিট করতে পারবেন। তবে এটুক বলতে পারি, আর কয়েক বছর পরে IST তে যখন এতো বেশি ইন্টারন্যাশনাল এপ্লিকেশন জমা হবে তখন তারা IELTS/TOEFL বাধ্যতামূলক করে দেবে। আমি জানি না, এই পোস্ট পড়ার পরে আমাদের দেশ থেকেই হয়তো হাজারে হাজারে আবেদন জমা হবে এই ইনটেক থেকে। হয়তো পরের ইনটেক থেকেই এপ্লিকেশনের চাপ সামলাতে না পারলে IELTS বাধ্যতামূলক করতে পারে ইনিশিয়াল ফিল্টারিং এর জন্য। তাই যাদের IELTS নেই কিন্ত ভালো রিসার্চ অভিজ্ঞতা আছে সময় থাকতে থাকতে তারা আবেদন করে ফেলুন।
বিস্তারিত: https://phd.pages.ist.ac.at/phd-admissions/
আবেদনের লিংক: https://apply.app.ist.ac.at/users/login
অল দ্য বেস্ট।

লেখকঃ মো.নাজমুল হাসান

প্ল্যাটফর্ম ফিচার রাইটারঃ উর্বী সারাফ আনিকা
৫ম বর্ষ
রংপুর কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ Austria,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.