সফলতার গল্পঃ ঢাকা শিশু হাসপাতালে প্রথমবারের মত ক্লোয়াকাল এনোমেলী অপারেশন

ক্লোয়াকাল এনোমালী ( cloacal anomaly) মেয়ে বাচ্চাদের হওয়া এমন একটা রোগ যেখানে মেয়েদের মাসিক, পায়খানা এবং পেশাবের ৩ টি আলাদা রাস্তার পরিবর্তে একটি মাত্র রাস্তা থাকে। অর্থাৎ পেশাব পায়খানা এবং মাসিক একটি রাস্তা দিয়ে হয়। মানে হচ্ছে পেটের ভিতরে জরায়ু, মুত্র থলি এবং পায়খানার নাড়ি একত্রিত হয়ে থাকে। এই ধরনের রোগীদের চিকিৎসা ধাপে ধাপে হয়।

প্রথম ধাপে বাচ্চার পেটের উপর একটা বিকল্প পায়খানার রাস্তা বা colostomy করা হয়। ২ য় অপারেশন অত্যন্ত জটিল। ২য় অপারেশন সাধারনত ২ ভাবে হয়। যাদের জন্মগত ভাবে জরায়ু এবং যোনিপথ তৈরি থাকে (৭০% রোগী), তাদের ক্ষেত্রে শুধু রাস্তা তিনটা আলাদা করে যোনিপথ সামনে স্বাভাবিক জয়গায় নিয়ে আসা হয়, অপেক্ষাকৃত সহজ কাজ। ঝামেলা বাকী
৩০ % রোগীর যাদের জন্মগতভাবে জরায়ু এবং যোনিপথ তৈরি হয়না ( vaginal agenesis)। এই বাচ্চাগুলার যোনিপথ না থাকায় আমাদের দেশে এদের খুব কার্যকারী কোনো চিকিৎসা হতোনা অথচ বাইরের দেশে বৃহদান্ত্র দিয়ে যোনিপথ তৈরী করে এইসব বাচ্চাদের ( যে ৩০% এর জন্মগত ভাবে যোনিপথ তৈরী হয়নি) ৭০% স্বাভাবিক জীবন যাপন করে এমন কি বাচ্চাও নিতে পারে।

বৃহদান্ত্র দিয়ে জরায়ু তৈরীর এই অপারেশন আমাদের শিশু হাসপাতালে ইতিপুর্বে হতোনা। উপরের ছবির বাচ্চাটা ক্লোয়াকাল এনোমালী রোগে আক্রান্ত, সাথে ওর যোনিপথ এবং পায়খানার রাস্তা জন্মগত ভাবে তৈরী ছিলনা। গত ৩-২-১৯ তারিখ ঢাকা শিশু হাসপাতালে ওর অপারেশন করি। শিশু হাসপাতালে প্রথম বারের মতো বৃহদান্ত্র দিয়ে ওর যোনিপথ তৈরী করি, সাথে পেশাব এবং পায়খানার রাস্তাও আলাদা তৈরী করি। সব মিলিয়ে সময় লাগে ৬ ঘন্টা ৩০ মিনিট। এই দীর্ঘ সময় বাচ্চাটাকে সফলতার সাথে অজ্ঞান রাখেন আমাদের এনেস্থেসিয়া বিভাগ। উনাদের কাছে কৃতজ্ঞতার শেষ নাই। বাচ্চাটা ভাল আছে। আজকে ছুটি দিলাম। আশাকরি ওর ভবিষ্যতও ভালো হবে।

বিঃ দ্রঃ ছবি প্রকাশের লিখিত অনুমুতি আছে।

ডাঃ সাব্বির করিম
সহকারী অধ্যাপক
শিশু সার্জারী বিভাগ, ঢাকা শিশু হাসপাতাল

ওয়েব টিম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

গায়ে এপ্রোন, কাঁধে স্টেথোস্কোপ সহ এক ভুয়া মহিলা ডাক্তার গ্রেফতার

Wed Feb 13 , 2019
গায়ে এপ্রোন, কাঁধে স্টেথোস্কোপ। দেখতে ডাক্তারের মতো হলেও তিনি ডাক্তার নন। একজন ধূর্ত প্রতারক। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের চিকিৎসক পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে রুমা আক্তারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আটক রুমার নিজ বাড়ি ভোলা জেলার লালমোহন উপজেলা পরিচয় দিলেও বর্তমানে সে কর্ণফুলী থানার পার্শ্ববর্তী বোর্ডবাজার এলাকার আব্বাস কলোনিতে বসবাস করেন বলে […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট