৯ম বর্ষে পদার্পণ করলো প্ল্যাটফর্ম অব মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল সোসাইটি

প্ল্যাটফর্ম নিউজ, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, সোমবার 

দেখতে দেখতে অষ্টম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে এসে পৌঁছালো দেশের চিকিৎসক ও মেডিকেল ডেন্টাল শিক্ষার্থীদের সর্ববৃহৎ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্ল্যাটফর্ম অব মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল সোসাইটি। ২০১৩ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হয় প্ল্যাটফর্মের। প্ল্যাটফর্মের গোড়াপত্তনের সঙ্গে ওতোপ্রতোভাবে যাঁর নাম জড়িয়ে রয়েছে তিনি হলেন ডা. মহিবুর হোসেন নীরব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অনকোলজি বিভাগের এই রেসিডেন্ট চিকিৎসক প্ল্যাটফর্মের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি ইন্টার্নশিপ শেষে পেশাজীবনে প্রবেশ করেই দোটানায় পড়েছিলেন। অনুভব করেছিলেন সঠিক পরামর্শ আর দিকনির্দেশনার। শিক্ষা ও কর্মজীবনে কখন কোন সিদ্ধান্ত নিলে উপকার পাওয়া যায়, সে বিষয়টি জানার সুযোগ কম। সেই চিন্তা থেকে এমন মঞ্চ তৈরি করতে চাইলেন, যেখানে সমস্যার কথা বলা যাবে, পরামর্শ পাওয়া যাবে অভিজ্ঞদের কাছে।

এ ছাড়া ২০১১-১২ সালে চিকিৎসকদের সঙ্গে বেশ কিছু দুর্ঘটনা ঘটে। কয়েকজন চিকিৎসককে প্রাণ হারাতে হয়। চিকিৎসকদের সংগঠনগুলো সেভাবে প্রতিবাদ করেনি। তাই চিকিৎসকদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়েও তাঁরা একত্র হন। এই ‘তাঁরা’ হলেন ডা. মারুফুর রহমান, ডা. আসিফ উদ্দিন খান, ডা. আহমেদুল হক ও ডা. সিফাত খন্দকার।

সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন মেডিকেল কলেজের সমমনা এই তরুণ চিকিৎসকেরা শুরু করলেন ‘প্ল্যাটফর্ম’। মেডিকেল পড়ুয়া ও নবীন চিকিৎসকদের পেশাগত দিকনির্দেশনা ও চিকিৎসকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই ছিল তাঁদের ব্রত। পরবর্তীতে বাংলাদেশের চিকিৎসকদের উপর ক্রমবর্ধমান চাপ, হুমকি ও নিরাপত্তাহীনতার মুখে চিকিৎসকদের অধিকার আদায়ের একটি মাধ্যম হিসেবে পরিণত হয় “প্ল্যাটফর্ম অব মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল সোসাইটি”। সেই ২০১৩ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর অনলাইন গ্রুপ হিসেবে যাত্রা শুরু করা প্ল্যাটফর্ম আজ ১ লাখ ১২ হাজার সদস্যের অংশগ্রহণে দেশের সবচেয়ে বড় প্রোফেশনাল ফোরাম এবং সংগঠন। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির কেন্দ্রীয় অফিস দক্ষিণ বাসাবাে, সবুজবাগ, ঢাকায় অবস্থিত।

উল্লেখ্য একটি অরাজনৈতিক, অলাভজনক এবং সেচ্ছাসেবীমূলক প্রতিষ্ঠান প্ল্যাটফর্মের প্রধান লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য হলো চিকিৎসকদের উপর হয়রানি বন্ধে কাজ করা, জনগণ ও চিকিৎসকদের সেতুবন্ধনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যখাতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনয়ন, চিকিৎসকদের নিরাপদ কর্মস্থল নিশ্চিত করা, চিকিৎসক ও শিক্ষার্থীদের দক্ষ করে গড়ে তোলা ইত্যাদি। “ইউনাইটেড উই স্ট্যান্ড, ইউনাইটেড উই সার্ভ” অঙ্গীকার নিয়ে এখন পর্যন্ত প্ল্যাটফর্মে আছে সহস্রাধিক এক্টিভিস্ট। উপদেষ্টা পরিষদ, গভর্নিং পরিষদ, কেন্দ্রীয় পরিষদ ও সাধারণ পরিষদ নিয়েই প্ল্যাটফর্মের কাঠামো গঠিত। কেন্দ্রীয় পরিষদের বর্তমান সভাপতি হিসেবে রয়েছেন ডা. ফয়সাল বিন সালেহ। এই পরিষদে রয়েছে জোন, উইং এবং ডিভিশন। ঢাকা উত্তর, ঢাকা দক্ষিণ, গাজীপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, রংপুর, বরিশাল, রাজশাহী, ফরিদপুর, সিলেট, কুমিল্লা, সিরাজগঞ্জ, খুলনা জেলা প্ল্যাটফর্ম জোনের অন্তর্ভুক্ত। এছাড়াও প্ল্যাটফর্মের কার্যক্রমকে ভাগ করা হয়েছে কয়েকটি ডিভিশনে। হিউম্যান রিসোর্স ডিভিশন, মেডিকেল একাডেমিক ডিভিশন, ডেন্টাল একাডেমিক ডিভিশন, টেকনিক্যাল ডিভিশন, সোশাল ফোরাম ডিভিশন, মেডিকেল জার্নালিজম ডিভিশন, ট্রেনিং ডেভেলপমেন্ট এন্ড লিডারশীপ ডিভিশন নিয়েই এটি গঠিত। উইংসের মধ্যে রয়েছে রাইটস এন্ড রেস্পন্স উইং, ক্যারিয়ার উইং, রিসার্চ উইং, ট্রাভেল উইং, সোশাল এওয়ারনেস ও হিউম্যান ওয়েলফেয়ার উইং, ডিজাইন এন্ড গ্রাফিকস উইং এবং ফ্রেমস উইং।

 

 

এছাড়াও বিগত আট বছর ধরে প্ল্যাটফর্ম যুক্ত আছে বিভিন্ন কার্যক্রমের সাথে। সংগঠনটি কাজ করে যাচ্ছে মেডিকেল শিক্ষাব্যবস্থার মান উন্নয়ন ও প্রসারেও। তারা নিজেদের সমৃদ্ধ করতে জড়িয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন গবেষণা সংস্থার সঙ্গে, মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ পড়ুয়াদের জন্য আয়োজন করে চলছে পেশাবিষয়ক অনুষ্ঠান। রক্তদানে উদ্বুদ্ধকরণ, বন্যাদুর্গতদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ ও ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করাসহ সংগঠনটি বিভিন্ন জনসচেতনতা ও জনসেবামূলক কাজ করেছে।

২০১৮ সালে রাজধানী ঢাকায় ৫০০ জন সেচ্ছাসেবকের অংশগ্রহণে আয়োজিত হয় প্ল্যাটফর্ম স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের “চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী”। “ডেঙ্গু সচেতনতামূলক কার্যক্রম” উপলক্ষ্যে ১০০০ হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবকের অংশগ্রহণে ঢাকায় ১৬৯ টি স্কুল এবং ঢাকার বাইরে ১৫ টি স্কুলে ক্যাম্পেইন করা হয়। এছাড়াও “জরায়ু ক্যান্সার সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন” ও “ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন”এর আয়োজন করা হয় প্ল্যাটফর্মের পক্ষ হতে। এছাড়াও প্ল্যাটফর্ম থেকে বছরের বিভিন্ন সময় আয়োজন করা হয় ” হেলথ ক্যাম্পেইন”। প্ল্যাটফর্ম এবং হাইপারটেনশন এন্ড রিসার্চ সেন্টার, রংপুরের যৌথ উদ্যোগে পালিত হয় “ওয়ার্ল্ড হাইপারটেনশন ডে”। এছাড়াও আরাে কিছু আন্তর্জাতিক দিবস, যেমন: ওয়ার্ল্ড হিমােফিলিয়া ডে, ওয়ার্ল্ড র‍্যাবিস ডে ইত্যাদি পালন করা হয়েছে প্ল্যাটফর্মের পক্ষ থেকে। প্ল্যাটফর্ম থেকে নিয়মিতভাবে বিভিন্ন জাতীয় দিবস উদযাপনে নানারকম প্রতিযােগিতা, আলােচনা সভা, টিভি প্রােগ্রাম, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ইত্যাদির আয়োজন করা হয়। প্ল্যাটফর্মের পক্ষ হতে কোভিড-১৯ সম্পর্কে গণসচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে বিভিন্নরকম প্রােগ্রাম ও পােস্টারিং করা হয়। এভাবেই গত আট বছর ধরে প্ল্যাটফর্ম কাজ করে যাচ্ছে স্বার্থহীনভাবে।

২০১৯ এ চীনের উহান শহর থেকে করোনাভাইরাস এশিয়ার বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করলো, আর কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত রোগীর প্রথম মৃত্যুও হলো চীনেই। ২০২০ সালের জানুয়ারির সেই সময়েই করোনাকালীন কার্যক্রমে তৎপর হলো ‘প্ল্যাটফর্ম’। সংগঠনটি নিজেদের চিকিৎসাবিষয়ক নিউজ পোর্টাল ও ফেসবুক পেজের মাধ্যমে করোনাভাইরাস বিষয়ে আলোচনা ও জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম শুরু করল। প্রকোপ যখন ছড়াতে থাকল, দিনে দিনে বাড়লো প্ল্যাটফর্মের যুক্ততা।

সারা দেশে চিকিৎসকদের জন্য সুরক্ষাসামগ্রী সরবরাহ করতে প্ল্যাটফর্ম গড়ে তুলল ‘পিপিই ব্যাংক’। সংগঠনটির তথ্য অনুযায়ী, বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে সংগ্রহ করে এই ব্যাংকের মাধ্যমে ১৫টি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং ৩৩২টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রায় ১০ হাজার ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রী (পিপিই) দিয়েছে তারা।

গত বছরের মার্চে ছুটি ঘোষণা করল সরকার। তার কিছুদিন পর অনেক পেশাজীবীর মতো করোনার ঢেউয়ে চিকিৎসকেরাও কেউ কেউ চাকরি হারালেন। অভাবের দিনগুলোতে এমন চিকিৎসকের পাশে দাঁড়ালো প্ল্যাটফর্ম। ফান্ডামেন্টাল রাইটস ফর বেটার হেলথের সহযোগিতায় ২৬ জন চিকিৎসককে খুঁজে বের করে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হলো। মানুষকে সহায়তার সেই ব্রত পালনের সময়ই সংগঠনটির সদস্যরা খেয়াল করলেন প্লাজমার প্রয়োজন। উদ্যোগ নেওয়া হলো ‘প্ল্যাটফর্ম প্লাজমা ডোনার পুল’ গঠনের। এ পর্যন্ত ১০০ জনের বেশি কোভিড-১৯ রোগীকে প্লাজমা সংগ্রহ করে দিয়েছে সংগঠনটি।

এছাড়া করোনাকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বেশ কিছু কর্মসূচির সঙ্গেও যুক্ত আছে প্ল্যাটফর্ম। প্ল্যাটফর্মের প্রায় তিন হাজার স্বেচ্ছাসেবী চিকিৎসক জাতীয় হেল্পলাইন ৩৩৩-এর মাধ্যমে টেলিফোনে মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেন করোনাকালে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সমন্বিত করোনা কন্ট্রোল রুমে কাজ করছে প্ল্যাটফর্মের ২০ সদস্যের একটি দল, থেকে নানা উদ্যোগের সঙ্গে।

চিকিৎসকদের উপর হওয়া নির্যাতনের সংবাদ পরিবেশনে প্ল্যাটফর্ম মেডিকেল ও ডেন্টাল নিউজপোর্টালের সংবাদ সমূহের একাংশ

“নিরাপদ কর্মস্থল সৃষ্টি স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতের অন্যতম শর্ত”
এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে করোনার মাঝেই ৩০ নভেম্বর, ২০২০ পালিত হয় “নিরাপদ চিকিৎসক কর্মস্থল দিবস”।

 

অন্যদিকে ২০২১ সালের ১-৭ এপ্রিল “প্ল্যাটফর্ম” ও “বাংলাদেশ টিচার্স ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট” এর উদ্যোগে দেশে প্রথমবারের মতো আড়ম্বরপূর্ণভাবে পালিত হয় চিকিৎসক সপ্তাহ -২০২১। যার প্রতিপাদ্য ছিল– ‘স্বাস্থ্যখাতের সকল অংশে চিকিৎসকদের সমান অংশীদারিত্ব নিশ্চিত এক আধুনিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থার অন্যতম শর্ত।’ বাংলাদেশ মেডিকেল টিচার্স ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট চিকিৎসক সপ্তাহ -২০২১ উপলক্ষ্যে সকল কর্মসূচি অনলাইনে সরাসরি সম্প্রচারিত হয় ‘Platform’ এবং ‘Channel H1’ এর ফেসবুক পেইজ এবং ‘Platform’ এবং ‘Channel H1’ এর ইউটিউব চ্যানেল থেকে।

অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ হিসেবে চিকিৎসাখাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ও ভূমিকার জন্য ১৬ ব্যক্তি ও ৩টি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানকে প্ল্যাটফর্ম ও বাংলাদেশ মেডিকেল টিচার্স ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে চিকিৎসক পদক প্রদানের ঘোষণা করা হয়। ১৬ জন ব্যক্তির মধ্যে ছিলেন ১৪ জন চিকিৎসক, ১ জন আইনজীবী ও ১ জন সাংবাদিক।

 

আগামী ৮ অক্টোবর, ২০২১, রোজ শুক্রবার বিএমএ অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে “প্ল্যাটফর্ম অব মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল সোসাইটির” বার্ষিক সাধারণ সভা-২০২১। নতুন দিনে নতুন নেতৃত্বের হাত ধরে এভাবেই সামনে এগিয়ে চলবে
দেশের চিকিৎসক ও মেডিকেল ডেন্টাল শিক্ষার্থীদের সর্ববৃহৎ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্ল্যাটফর্ম অব মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল সোসাইটি- এমনই প্রত্যাশা সকলের।

লেখাঃ
হৃদিতা রোশনী, জান্নাতুন নূর আয়মন

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

হৃদিতা রোশনী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

চাঁপাইনবাবগঞ্জ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের নতুন কমিটির অনুমোদন

Thu Sep 30 , 2021
প্ল্যাটফর্ম নিউজ, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার  আগামী ১ বছরের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের আংশিক কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সংগঠনটির সদ্য সাবেক সভাপতি তাজরেমিন নাহার রিক্তা ও সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়ার হোসেনের সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ অনুমোদন দেওয়া হয় এবং আগামী এক মাসের মধ্যে পূর্নাঙ্গ কমিটি করার […]

Platform of Medical & Dental Society

Platform is a non-profit voluntary group of Bangladeshi doctors, medical and dental students, working to preserve doctors right and help them about career and other sectors by bringing out the positives, prospects & opportunities regarding health sector. It is a voluntary effort to build a positive Bangladesh by improving our health sector and motivating the doctors through positive thinking and doing. Platform started its journey on September 26, 2013.

Organization portfolio:
Click here for details
Platform Logo