বিসিএস লিখিত পরীক্ষা নিয়ে কিছু টিপস

বিসিএস লিখিত পরীক্ষা খুব গুরুত্বপূর্ণ। লিখিত পরীক্ষায় ভালো করলে ভালো ফলাফলের সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়, কারণ লিখিত পরীক্ষা এবং মৌখিক পরীক্ষার নাম্বার মিলিয়েই চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

পরীক্ষার আগের টিপস
১। নিজের ওপর আস্থা রাখতে হবে, গড়ে প্রতিটি পরীক্ষা ভালো দেয়ার চেষ্টা করতে হবে।
২। বিভিন্ন টপিক অনুযায়ী কি কি রেফারেন্স লিখবেন, সেটা আগে থেকে প্ল্যান করে রাখতে পারলে ভালো।
৩। কি ধরণের প্রশ্নের উত্তর কিভাবে শুরু করা যেতে পারে এটা ঠিক করে রাখার চেষ্টা করবেন।
৪। বিগত বছরের প্রশ্ন দেখে একটা ধারণা নিয়ে যাবেন ।

পরীক্ষার হলের টিপস
১। শুরুতে প্রতিটি প্রশ্নের মান বণ্টন এবং কোন কোন প্রশ্ন অবশ্যই উত্তর করতে হবে, এটা ভালমতো পড়া দরকার।
২। প্রশ্ন হাতে পাওয়া মাত্রই লিখা না শুরু করে আগে প্রশ্নপত্রটি একবার চোখ বুলিয়ে নেয়া উচিত।
৩। প্রশ্নের নাম্বারের ওপর নির্ভর করে উত্তর লিখা উচিত। কোন একটি প্রশ্নের উত্তর অনেক বড় করে লিখতে গিয়ে পরে কোন প্রশ্ন উত্তরই করতে পারলেন না বা উত্তর একদম ছোট হয়ে গেলো এমনটি যেন না হয়। এজন্য পরীক্ষার শুরুতেই নিজে একটা প্ল্যান করে নিতে পারেন যে কোন প্রশ্নের উত্তর কতটুকু লিখবেন, কত সময় ধরে লিখবেন । গড়ে প্রতি প্রশ্নের জন্য কত সময় পাচ্ছেন এই বিষয়ে ধারণা রাখাটা জরুরী । আর অবশ্যই যতটা পারবেন বেশি লিখার চেষ্টা করবেন।
৪। তথ্যবহুল লেখার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রেফারেন্স, ছক, ডাটা, পাই চার্ট, কবিতার লাইন, বিখ্যাত উক্তি, পত্রিকার রেফারেন্স ইত্যাদি প্রশ্নের ধরণ অনুযায়ী লিখতে পারলে ভালো। পাতাভরা লিখার চেয়ে তথ্যবহুল লিখার মূল্য বেশি।
৫। সব প্রশ্ন কমন পড়বে এমন ভাবা ঠিক নয়,তবে প্রতিটি প্রশ্ন উত্তর করার চেষ্টা করতে হবে। কোন প্রশ্ন সেভাবে কমন না পড়লেও নিজের ধারণার ওপর যতটুকু পারা যায় লিখে আসবেন ।
৬। যেসব প্রশ্নের উত্তরে সম্পূর্ণ নাম্বার পাওয়া সম্ভব সেগুলোতে ভালো করার চেষ্টা করবেন। গণিত, ইংরেজি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এসব পরীক্ষায় যারা ভালো করবেন, তারা অনেকটাই এগিয়ে যাবেন।
৭। প্যারা করে লিখতে পারেন, লিখাটা দেখে যেন গোছানো মনে হয়। চাইলে বিশেষ রেফারেন্সগুলোতে পেন্সিল বা নীল কালির কলম ব্যবহার করতে পারেন। যেসব প্রশ্নের উত্তরে মানচিত্র আঁকা সম্ভব, সেখানে তা আঁকবেন। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রশ্নের উত্তরে চিত্র দিলে ভালো।
৮। কোন পরীক্ষাতেই খুব বেশি তাড়াহুড়ো করতে নেই,এতে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। কোন তথ্য বা প্রশ্নের উত্তর তাৎক্ষণিক মনে না এলে সেটা এড়িয়ে অন্য প্রশ্ন উত্তর করুন।

যতটুকু বা যাই পড়া হোক না কেন, পরীক্ষায় নিজের সর্বোচ্চ দেয়ার চেষ্টা করুন। আপনার আস্থা, আত্মবিশ্বাস, ধৈর্য, অধ্যবসায় আর পরিশ্রম আপনাকে জীবনে এগিয়ে নিয়ে যাবে। নিজের লক্ষ্যমাত্রা অটুট আর সাথে চেষ্টা থাকলে সফল আপনি হবেনই।

আরিয়ান আহমেদ
ঢামেক ০৩-০৪

প্ল্যাটফর্ম ফিচার রাইটার:
সামিউন ফাতীহা
শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ, গাজীপুর

Platform

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

আগামী ৪ অক্টোবর এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা

Mon Aug 19 , 2019
প্রকাশিত হলো ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি বিজ্ঞপ্তি। আগামী ৪ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সারাদেশে নির্ধারিত কেন্দ্রে একযোগে পরীক্ষা নেয়া হবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা: এ কে এম আহসান হাবিব সাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ২০১৬ বা […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট