• নিউজ

November 14, 2019 12:19 am

১৩ নভেম্বর, ২০১৯

আজ ১৩ ই নভেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা অনুষদের ডীন নির্বাচিত হয়েছেন সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ শাহরিয়ার নবী। তিনজন প্রার্থীর মধ্যে তিনি সর্বোচ্চ ৭৭৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মজিবুর রহমান, বিভাগীয় প্রধান (মেডিসিন বিভাগ), ঢাকা মেডিকেল কলেজ ২৩৬ ভোট কম অর্থাৎ ৫৪৬ ভোট পেয়েছেন। ডাঃ শাহরিয়ার নবী বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজের রেডিওলজি ও ইমেজিং বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে প্রতি ২ বছর অন্তর চিকিৎসা অনুষদের ডীন নির্বাচনের এই প্রক্রিয়া পরিচালিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সকল সরকারী মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক, লেকচারার, বি.এস.সি নার্সিং কলেজের শিক্ষক, সরকারী ডেন্টাল কলেজের শিক্ষকগনের প্রত্যক্ষ ভোটে ডীন নির্বাচিত হোন।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অফ মেডিকেল সাইন্সের চীফ একাডেমিক পার্সন হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করবেন। ফ্যাকাল্টির উন্নয়নে, পাঠ্যসূচি ও মেডিকেল এডুকেশন এর উন্নয়ন, মান নিয়ন্ত্রন, সরকারী ও বেসরকারী মেডিকেল কলেজসমূহের মান নিয়ন্ত্রন ও পর্যালোচনা, প্রফেশনাল পরীক্ষার সকল কাজ ইত্যাদি তার কার্যপরিধির মাঝে পড়ে।
এরই পরিপ্রেক্ষিতে আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সকল সরকারী মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। সকল প্রক্রিয়া শেষে অনানুষ্ঠিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয় সন্ধায়।
ডাঃ শাহরিয়ার নবী ( শাকিল) ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ২৪ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। ১৯৯৩ সালে তিনি এমবিবিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হোন। তিনি ২০১০ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক, ২০১৫ সালে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় কার্যপরিষদের সদস্য, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের ২০১৭-১৯ এর বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক, রেডিওলজি ও ইমেজিং সোসাইটির ২০১৭-১৯ এর মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজের রেডিওলজি ও ইমেজিং বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত থাকার পাশাপাশি রেডিওলজি ও ইমেজিং সোসাইটির মহাসচিব হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত আছেন।

স্টাফ রিপোর্টার/ জামিল সিদ্দিকী

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা অনুষদের ডীন নির্বাচিত হলেন ডাঃ শাহরিয়ার নবী (শাকিল),

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.