• প্রথম পাতা

April 23, 2017 4:45 pm

প্রকাশকঃ

ডিস্কাউন্ট এবং ভিজিটঃ

একজন চিকিৎসক নিজে বা/এবং তার ফার্স্ট ডিগ্রি রিলেটিভ যখন আরেকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে রোগী হিসেবে যাবেন তখন তিনি ভিজিট দিতে বাধ্য কি না?

একজন চিকিৎসক/চিকিৎসা শিক্ষার্থী হিসেবে বাংলাদেশের যে কোন বেসরকারি হাসপাতালে/চেম্বারে অগ্রাধিকার(সিরিয়াল এবং ডিস্কাউন্ট) প্রাপ্য কি না?

এ দুটো বিষয় ছিল প্ল্যাটফর্ম এ গত কয়েক দিনের বিতর্ক, দাবী বা আলোচনার মূল দিক। প্ল্যাটফর্মে প্রায় সকল স্তরের চিকিৎসক এবং শিক্ষার্থী এ ব্যাপারে মতামত দিয়েছেন। প্ল্যাটফর্ম এর মাধ্যমে আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে(বিএমডিসি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, বিএমএ, চিকিৎসকদের রাজনৈতিক প্রতিনিধি) আমাদের দাবি, মতামত পৌঁছে দিতে পারি। কিছু তথ্য শেয়ার করতে চাই এবং কিছু জিজ্ঞাসা-

১ চিকিৎসকদের চিকিৎসা পেশার লাইসেন্স বলবৎ রাখতে নির্দিষ্ট সময় অন্তর একটি নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তাদের পেশাগত জবাবদিহিতার রিপোর্ট জমা দিতে হয়।

২ পেশাগত জবাবদিহিতা একটি নির্দষ্ট ফর্মের মাধ্যমে করা হয় যেখানে একজন চিকিৎসকের প্র‍্যাক্টিস সম্পর্কে ফিডব্যাক দেন-
ক) চিকিৎসক নিজে
খ) চিকিৎসককে ফিডব্যাক দেয়ার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক(তিনি একই এলাকার একই স্পেশালিটির হন)
গ) চিকিৎসকের চিকিৎসা প্রাপ্ত নির্দিষ্ট সংখ্যক রোগী যাদের বাছাই করা হয়
ঘ) চিকিৎসকের বিরুদ্ধে আসা অভিযোগ বা চিকিৎসকের সাফল্যের বিশ্লেষণ
ঙ) চিকিৎসকের পেশা সম্পর্কিত কোন ঘটনা

এই নিয়মটি ইউকে তে প্রচলিত। সেখানে প্রতিবছর ফিডব্যাক দিতে হয় এবং পাচঁ বছর অন্তর এর উপর ভিত্তি করে(+আনুষঙ্গিক অন্যান্য বিষয়) লাইন্সেন নবায়ন বা উইথহেল্ড বা প্রয়োজনীয় ট্রেনিং এবং ব্যবস্থা নেয়া হয়।
চিন্তা করে দেখুন ইউকের এই নিয়ম বাংলাদেশে প্রচলিত হলে আমাদের অবস্থা কি হত? অথবা আমরা আরো বেশি ভালো চিকিৎসক হতাম।

বলছিনা বাংলাদেশ রাতারাতি বিলেত হয়ে যাবে। বলছিনা বাংলাদেশের সকল চিকিৎসক কে কড়া মনিটরিং এবং শাস্তির আওতায় আনতে হবে। এই তথ্যগুলো জানা ছিল, এরকম অভিজ্ঞতাও হয়েছে দেশের সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠানের বিশেষজ্ঞ আউটডোরে অধ্যাপক স্যারের মুখের উপর চিকিৎসা শেষে রোগী বলে গেছে I Am Not Satisfied with Your Treatment.

প্ল্যাটফর্ম এ বসে রাত দিন অভিযোগ করলে কোন পরিবর্তন আসবে না। এজন্য চাই সকলের ঐক্যমত(যেমন হ্যাঁ চিকিৎসা পেশার মানুষ হিসেবে আমাদের সকলের ডিস্কাউন্ট/ অগ্রাধিকার চাই), এরপর চাই এ ব্যাপারে কিছু ব্যাকগ্রাউণ্ড ওয়ার্ক(যেমন পৃথিবীর কোন কোন দেশে এরকম অগ্রাধিকার প্রচলিত আছে এবং সেটা কিভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে-ইন্সুরেন্স, বিএমএ মেম্বারশিপ, কোন কার্ড), বাংলাদেশে কোন প্রতিষ্ঠান এরকম অগ্রাধিকার অফিসিয়ালি দিচ্ছে কি না(যেমন বিএসএমএমইউ দেয়), এরপর কিছু পরিকল্পনা(এ ব্যাপারে আপনাদের সহযোগিতা প্রয়োজন), সকল পরিকল্পনা এবং বাস্তবায়নের রূপরেখা নিয়ে আমাদের প্রতিনিধিদের কাছে তুলে ধরা(বিএমএ, কর্তৃপক্ষ)।

ডিস্কাউন্টের ব্যাপারে চাইলে আজকে অন্তত কয়েকশ ক্লিনিকের ঘোষণা এই পোস্টেই আসতে পারে। কারণ নিদেনপক্ষে ৬৯ হাজার মেম্বারের এই গ্রুপে এতগুলো ক্লিনিকের মালিক/শেয়ার হোল্ডার প্ল্যাটফর্ম এই আছে। একইভাবে চেম্বারের ব্যাপারটি যেহেতু সম্মানিত অধ্যাপক স্যারদের হাতে তবুও যারা সাধারণত এ সম্মানটুকু দিয়ে থাকেন তাদের একটা তালিকা করতে শুরু করলে আগামী এক মাসেই সম্ভব। যে সকল সম্মানিত শিক্ষকের কথা আমরা সবাইকে জানাতে চাই।

প্রাণ গোপাল দত্ত স্যার বা আব্দুল্লাহ স্যারের অভিজ্ঞতা বলে আমরা জুনিয়র ডাক্তার বা ছাত্ররা রেফার করলে প্র‍্যাক্টিস কোথায় যেতে পারে। আইনে না হোক যারা নেতিবাচক প্র‍্যাক্টিস করে সামাজিক ভাবে আমরা বর্জন করে যারা ইতিবাচক প্র‍্যাক্টিস করে আমরা ব্র‍্যাণ্ডিং করতে পারি। এজন্য শুধু মাত্র একটি ডাটাবেইজ প্রয়োজন। সেটা আমরা সবাই মিলে করে ফেলবো।

আপনাদের সুচিন্তিত মতামত কামনা করছি।
আজ বেশ সিনিয়র কয়েকজন অধ্যাপক স্যারের সাথে প্ল্যাটফর্ম এর এক পার্টনার সংগঠনের কাজে আলাপ হচ্ছিল। তাদের মনোভাবে দুটো ব্যাপার প্রছন্ন ছিল- প্ল্যাটফর্মে আমাদের কিছু একটা করে দেখানোর মত মেকানিজম আছে এবং তাঁরা আশা করেন সেটা আমরা ভালো কাজে লাগাবো।

২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি। দেশের অর্থনীতি, প্রযুক্তি এগিয়ে গেছে বহুদূর। চিকিৎসক হিসেবে আমরা পিছিয়ে থাকবো কেন। বর্তমানে বাংলাদেশের সব চেয়ে যোগ্য দক্ষ চিকিৎসক সংগঠকগণ আমাদের প্রতিনিধিত্বকারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে(বিএমএ এবং রাজনৈতিক প্রতিনিধি), উপমহাদেশের অন্যতম সেরা চিকিৎসক বিএমডিসির দায়িত্বে, পৃথিবী ব্যাপী প্রশংসিত কর্মকর্তা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সর্বোচ্চ পদে আসীন আমরা সাধারণ চিকিৎসক এবং শিক্ষার্থী আরেকটু সক্রিয় হলে দেশের মানুষের জন্য কিছু করে দেখাতে পারি।

চিকিৎসক এবং চিকিৎসা শিক্ষার্থীদের জন্য সকল চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে অগ্রাধিকার চাই।

চমেক ৪৮, ২০০৫-৬
স্বত্ব-প্ল্যাটফর্ম
চিকিৎসা এবং চিকিৎসকের অধিকার-৩, ২২/৪/১৭.

দেশে বিদেশের সকল চিকিৎসকের মতামত চাচ্ছি, এ ব্যাপারে কাজ করতে ইচ্ছুক, গাইড করতে ইচ্ছুক অগ্রজের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
.