• প্রথম পাতা

June 15, 2019 5:51 pm

প্রকাশকঃ

প্রধান বিচারপতি টিবিএন রাধাকৃষ্ণণ এবং বিচারপতি শুভ্র ঘোষের ডিভিশন বেঞ্চ সরকারকে বলেছে ধর্মঘটী চিকিৎসকদের কাজে ফেরানোর জন্য় কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে, যাতে রোগীরা যথাযথ পরিষেবা পান।

ডাক্তারদের ধর্মঘট নিয়ে অন্তর্বর্তী আদেশ দিতে অস্বীকার করল কলকাতা হাইকোর্ট। চিকিৎসক কুণাল সাহা জুনিয়র ডাক্তারদের ধর্মঘটকে বেআইনি ঘোষণা করার জন্য় কলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছিলেন। হাইকোর্ট তার পরিপ্রেক্ষিতে মমতা সরকার চিকিৎসকদের উপর হামলার ঘটনায় কী পদক্ষেপ করেছে তা জানতে চেয়েছে। এ ব্য়াপারে ২১ জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে সরকারকে।

প্রধান বিচারপতি টিবিএন রাধাকৃষ্ণণ এবং বিচারপতি শুভ্র ঘোষের ডিভিশন বেঞ্চ সরকারকে বলেছে ধর্মঘটী চিকিৎসকদের কাজে ফেরানোর জন্য় কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে, যাতে রোগীরা যথাযথ পরিষেবা পান।

চিকিৎসক এবং মেডিক্য়াল ছাত্রদের আন্দোলন আজ নিয়ে পঞ্চম দিনে পড়ল। তাঁরা এখনও নিরাপত্তার দাবিতে অনড়। এনআরএস মেডিক্য়াল কলেজে এক রোগীর মৃত্য়ুর পর সেখানে চড়াও হয়ে জুনিয়র ডাক্তারদের মারধর করে একদল জনতা। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হন পরিবহ মুখোপাধ্য়ায় নামে এক জুনিয়র ডাক্তার।

মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় জানিয়েছেন, এ ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করা সত্ত্বেও বিক্ষোভ চালানো হচ্ছে। এদের সকলে জুনিয়র ডাক্তার নয়, এদের মধ্য়ে বহিরাগতরাও রয়েছে। তিনি একই সঙ্গে হুমকি দিয়েছিলেন চার ঘণ্টার মধ্য়ে যারা কাজে যোগ দেবে না, তাদের প্রোফাইল খতিয়ে দেখা হবে।

মমতার হুমকির পরপরই বৃহস্পতিবার থেকে বিভিন্ন জায়গা থেকে চিকিৎসকরা পদত্য়াগ করতে শুরু করেচেন। বৃহস্পতিবার সাগর দত্ত হাসপাতাল থেকে পদত্য়াগের যে সূচনা হয়েছিল, শুক্রবার তার আকার বেড়ে চলেছে। আরজিকর, উত্তরবঙ্গ মেডিক্য়াল কলেজ থেকে পদত্য়াগের খবর এসেছে।

খবরঃ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেক্স

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.