চলন্ত বিমানের ভিতর শ্বাসরুদ্ধভাবে একটি বাচ্চাকে বাঁচালেন, বিমানে ভ্রমনরত এক চিকিৎসক


চলন্ত বিমানের ভিতর শ্বাসরুদ্ধকর ঘটনায় একটি বাচ্চাকে বাচালেন ঐ বিমান ভ্রমনরত চিকিৎসক।

প্ল্যাটফর্ম রিপোর্টঃ ডা. আলোক নন্দী, সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজেরচেকজন অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর এবং অ্যানেসথেসিওলজিস্ট!

বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সহধর্মিণী সহ ঢাকা আসার সময়, শ্বাস রুদ্ধকর পরিস্থিতিতে ঐ চলন্ত বিমানে একটি বাচ্চাকে ইমারজেন্সি বক্সে থাকা মেডিসিন দিয়ে বাচিয়ে দিয়েছিলেন।
উল্লেখ্য, বাচ্চাটির ব্রেন টিউমার অপারেশনের ইতিহাস রয়েছে। ঐ বিমানে তার হঠাৎ ‘জরুরি অবস্থা’ খিচুনী হয়েছিল। যখন বাচ্চাটির দরকার ছিল দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া। কিন্তু চলন্ত বিমানে থাকায় তা সম্ভব ছিল না।

ভাগ্য ক্রমে ঐ বিমানেই ছিলেন ডা. আলোক নন্দী। তারপর শ্বাস রুদ্ধকর এই ঘটনায় কনভালসন নিয়ন্ত্রন করতে সক্ষম হলেন, ডা. আলোক নন্দী।

প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক ফোরামে এই ঘটনা উক্ত চিকিৎসক পোস্ট করার পর, ভাইরাল হয়ে যায়।

শ্বাস রুদ্ধকর পুরো ঘটনা প্ল্যাটফর্ম ফোরাম থেকে তুলে ধরা হল।

ডা. আলোক নন্দীঃ

জরুরী কাজে ঢাকা যাচ্ছি , সহধর্মিনী সাথে। বাংলাদেশ বিমান .. মাত্র চার ঘন্টা লেট ! মহা বিরক্তি নিয়ে আসনে বসলাম .. ‘আকাশ প্রদীপ ‘..টেক অফ ! হঠাৎ চিৎকার আমার বাচ্চা কে বাঁচান , পেছন ফিরে দেখি ১০/১১ বছরের ছেলে প্রচন্ড খিঁচুনি , দুই হাত বাঁকা হয়ে আছে , সিটবেল্ট খুললাম .. belt sign on , প্লেন ঊর্ধ্বমুখী .. বউ হাত ধরে রাখলো .. ইশারায় আশ্বস্ত করলাম । দু জন cabin crew help করলো , jaw thrust , air way tube !! Seizure এক মিনিট স্হায়ী হলো .. বুঝলাম আবার ও হবে .. তাই হলো .. এবার একটু বেশী , তাৎক্ষনিক জানলাম history of brain tumour operation one year back . মাথায় ঘুরছে convulsion control করতে হবে , কিন্তু কিভাবে ? Pilot worried , co pilot এলো .. emergency box আনালাম.. পেলাম , inj diazepam… দিতে হবে intravenous..মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে turbulence .. 30000ft on air .. cox’bazar sadar hospital ..risk !! সব ভুলে ঠান্ডা মাথায় দিলাম .. inj diazepam 5mg I/V by disposable syringe .. only 20 sec !! Convulsion controlled .. ঘুমিয়ে পড়লো বাচ্চা .. plane land করলো । বৃষ্টিস্নাত রাজধানীতে পা ফেললাম .. পিছনে ভেসে আসছে .. well done good job thank you doc .. সময় কই তাকাবার !! কাল ই তো ভুলে যাবে বাচ্চা র ইনি্জনিয়ার বাবা অথবা উৎকন্ঠিত passenger..it’s our life !!! ‘SOME SUPER HEROS DO’NT WEAR CAPS, THEY CALLED DOCTORS ‘

ওয়েব টিম

2 thoughts on “চলন্ত বিমানের ভিতর শ্বাসরুদ্ধভাবে একটি বাচ্চাকে বাঁচালেন, বিমানে ভ্রমনরত এক চিকিৎসক

  1. but there will be some correction regarding to his identity. His name is ডঃ অলোক নন্দী, এসোসিয়েট প্রফেসর ডিপার্টমেন্ট অফ এনেস্থেশিয়া, চট্টগ্রাম মা ও শিশু মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

  2. স্যালুট। আল্লাহতালা আপনাকে দুনিয়া ও আখেরাতে ভালো রাখুক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Next Post

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে আবারো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা

Wed Apr 10 , 2019
গতকাল ৯ এপ্রিল দুপুর ১২ টা নাগাদ কক্সবাজার সদর হাসপাতালে আবারো ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও অসৌজন্যমূলক আচরণ করে এক রোগীর স্বজন। ৮ এপ্রিল রাত ৮টায় বিকেলে ভর্তিকৃত এক শিশু রোগীর স্বজন কর্তব্যরত নার্সের কাছে আসলেন। বাচ্চাটিকে একজন ইএনটি (নাক-কান-গলা) বিশেষজ্ঞের চেম্বারে দেখানো হয়েছিল, যিনি বর্তমানে সরকারি চাকুরী থেকে অবসর নিয়েছেন। তিনি রোগীটি […]

সাম্প্রতিক পোষ্ট