• ক্যারিয়ার

September 1, 2017 10:00 am

প্রকাশকঃ

Dream to CANADA! ! ! Life VS Dream!
কানাডা উন্নত দেশগুলোর মাঝে যেন আরো উন্নত একটি দেশ, যেখানে মানুষের জীবন যাত্রার মান থেকে শুরু করে ভবিষ্যত পর্যন্ত সবকিছুই সুনিশ্চিত। তাই কানাডা চিকিৎসকদের অন্যতম প্রিয় গন্তব্যস্থান। ভবিষ্যত যেমন ভাল নিজেকে সে দেশে প্রতিষ্ঠা করাও কঠিন, তবে ঠিকঠাক পথ জানা থাকলে, ধৈর্য্য থাকলে সবকিছুকেই সহজ করে নেওয়া যায়। কানাডায় কিভাবে ডাঃ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করা যায় সে সম্পর্কে কিছু আইডিয়া শেয়ার করছি।
আপনি ৩টি মাধ্যমে কানাডায় প্রতিষ্ঠিত হতে পারেনঃ
১।স্কিল মাইগ্রেশন
২। নন-ক্লিনিক্যাল ক্যারিয়ার
৩।ক্লিনিক্যাল ক্যারিয়ার

১। স্কিল মাইগ্রেশনঃ
দিন যতই এগোচ্ছে মানুষের স্বপ্নগুলো কেমন জানি ফিকে হয়ে যাচ্ছে, এর একটি কারন হতে পারে অতিরিক্ত প্রতিযোগিতা। মাফ করবেন একটু হতাশা দিয়ে শুরু করি। আজ থেকে ঠিক ৪ বছর আগেও এই প্রসেস টা খুব সহজ ছিল। কিন্তু কালের বিবর্তনে দিন পাল্টেছে, পাল্টাচ্ছে সবকিছু। আগে বলে নেইঃ
@স্কিল মাইগ্রেশন কি?
= স্কিল মাইগ্রেশন হচ্ছে স্কিল এসেসমেন্ট। আপনার প্রফেশনাল দক্ষতা, ডিগ্রী, কাজের অভিজ্ঞতা, ল্যাংগুয়েজ প্রফিসিয়েন্সি (IELTS, GRE, GMAT, SAT, TOEFL), স্পন্সরশীপ এগুলো উপর একটি স্কোরিং করা হয়, আপনার স্কোর ভাল আসলে পেয়ে যাবেন সে দেশের স্থায়ী বসবাসের সুযোগ বা Permanent Residency (PR)। আপনি সেখানে যাওয়ার ২-৩ বছরের মাঝে পেয়ে যাবেন নাগরিকত্ব সহ পাসপোর্ট। এটা ২ রকম হয়ঃ
১। Skill migration with job offer
২। Skill migration without job offer

1.Skill migration with job offer: আপনাকে সে দেশ থেকে জব দিয়ে বাংলাদেশ থেকে নিয়ে যাবে। আগে বেশিরভাগ চিকিৎসক এই প্রসেসে যেতেন এবং বেশিরভাগই নন-ক্লিনিক্যাল জব অথবা NGO জব করতেন।
2. Skill migration without job offer:
তারা আপনাকে জব গ্যারান্টি দিবেনা, সেখানে গিয়ে আপনার খুজে নিতে হবে।
আমরা সবাই ডিবি লটারির কথা শুনতাম অনেক আগে। যার ভাগ্যে লটারী লেগে যেত সেই চলে যেত ইউএসএ তে। এভাবে খুব সহজেই US Citizen হওয়া যেত। যার ফলে আমেরিকা তে অনেক নন-স্কিল্ড মানুষ ঢুকে যায়, তাদের একটা লিমিটেশন ছিল। কোন দেশ থেকে ১ বছরে ৫০,০০০ এর বেশী এপ্লিক্যান্ট হয়ে গেলে US govt. সে দেশের স্ট্যাটাস বাদ করে দিত। যেটা আমাদের সাথে হয়েছে। বাংলাদেশে এখন এটা বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশ সেই লিমিটেশন ক্রস করায় আমরা তা হারিয়েছি। কানাডা, অস্ট্রেলিয়া ঠিক এই প্রসেসেই শিক্ষিত, সিভিলাইজড মানুষ নিচ্ছে স্কিল মাইগ্রেশন এর মাধ্যমে। আজকের এই সময়ে কানাডার এই স্কিল মাইগ্রেশন খুব কঠিন এবং চ্যালেঞ্জিং হয়ে উঠেছে।
কানাডায় স্কিল মাইগ্রেশনে এখনো এপ্লাই করতে পারেন, আর ২,১ বছর পর সে সুযোগ নাও থাকতে পারে। কানাডায় স্কিল মাইগ্রেশন এর সকল প্রসেসিং আপনি নিজেই করতে পারেন, তা না হলে Visa centre INC থেকেও করাতে পারেন,
আর অস্ট্রেলিয়ার জন্য Edu-aid এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। এরাই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে রেপুটেড প্রতিষ্ঠান।

২।নন-ক্লিনিক্যালঃ কানাডার নন-ক্লিনিক্যাল সেক্টর পুরুটাই রিসার্চ ভিত্তিক। আপনি ২ ভাবে এডমিশন নিতে পারেনঃ
a.Self-financed
b.Funding
a.Self-financed:
নিজের খরচে পড়াশুনা করতে গেলে ঝামেলা কম হয়। IELTS করে এপ্লাই করুন। অফার লেটার আসলে ভিসার জন্য এমবাসি ফেস করুন।
b.Funding: ফান্ডিং সেটা ফুল ফান্ডিং কিংবা হাফ ফান্ডিং হতে পারে। ফান্ডিং পেতে হলে আপনাকে সময় নিয়ে, ধৈর্য্য সহকারে এগোতে হবে। রিজেক্টেড হলেও হাল ছাড়বেন না। কানাডায় ইউনিভার্সিটি গুলোতে মেডিক্যাল ফ্যাকাল্টি কম। তাই প্রতিযোগিতা বেশি। ফান্ডিং পেতে হলে আপনার MBBS cgpa ভাল থাকতে হবে। WES থেকে সিজিপিএ কাউন্ট করতে হবেনা, কারন ওদের নিজস্ব লোকাল কাউন্টার আছে, ওরা নিজেদের মত করে সিজিপিএ কাউন্ট করে। টুকটাক রিসার্চ এক্সপেরিয়েন্স থাকলে, পাবলিকেশন্স থাকলে খুব সহজেই ফান্ডিং পাওয়া যায়। যারা রিসার্চ এর প্রতি আগ্রহী আছেন প্ল্যাটফর্ম রিসার্চ উইং এ কোর্স করতে পারেন। আশা করি ব্যাসিক রিসার্চ শিখতে পারবেন।
এরপর ভাল একটি GRE score + IELTS score নিয়ে একটি ভাল CV লিখুন। তারপর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল প্রফেসর স্যার কে ম্যানেজ করা। প্রফেসর ম্যানেজ হলে আপনার ফান্ডিং নিশ্চিত। এরপর একটি ভাল Statement of Purpose (SOP)/ Letter of Intent (LOI) লিখুন। এবং সব শেষে কয়েকটি Letter of Recommendation (LOR) ম্যানেজ করুন যেখানে আপনার সম্পর্কে অনেক পজিটিভ কথা লিখা থাকবে। মাস্টার্স শেষ করে আপনি সেই সাবজেক্ট রিলেটেড জব পেয়ে গেলে ভিসার মেয়াদ বাড়াবে, এবং কয়েক বছরের মাঝেই PR পেয়ে যাবেন।

৩। ক্লিনিক্যালঃ
এই কথা গুলো একটু মন দিয়ে পড়ুন। কানাডার ক্লিনিক্যাল লাইনে জটিলতা, প্রতিযোগিতা কিছু কিছু সময় USMLE থেকেও বেশি, তেমনি ক্লিনিক্যাল এ যেতে পারলে সুযোগও সারা বিশ্বের সবচেয়ে বেশি! কেন বলছি পড়ুনঃ
কানাডার লাইসেন্সিং পরীক্ষার একেক পার্টের একেক নাম। টোটাল ৪ টা পার্ট:
১। MCCEE
২। NAC OSCE
৩। MCCQE-1
৪। MCCQE-2

এই কথাটা খুব মন দিয়ে পড়ুন, এই ৪টা পার্ট সবাই দিতে পারবে রিকোয়ারমেন্ট শুধু আপনার কলেজ WORLD DIRECTORY IMED-FAIMER দ্বারা স্বীকৃত হতে হবে এবং Academic IELTS এ আপনার প্রত্যেক মডিউলে নূন্যতম ৭ থাকতে হবে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে এই ৪টা পার্ট পাশ করার পর রেসিডেন্সি পেতে কিংবা লাইসেন্স পেতে আপনাকে কানাডিয়ান পারমানেন্ট রেসিডেন্ট হতে হবে! আপনি PR holder না হলে Medical Residency & Lisence কোনটাই পাবেন না। তাই সিদ্ধান্ত নিতে হবে বুঝে শুনে। আপনার USMLE + US Residency complete থাকলে আপনি শুধুমাত্র MCCEE দিয়ে কানাডার লাইসেন্স পাবেন।

@Exam Centre:
MCCEE এর সেন্টার Prometry থেকে দেখে ইন্ডিয়া তে যেকোন সেন্টার বাছাই করতে পারেন।
এবং NAC OSCE, MCCQE-1, MCCQE-2 এর জন্য আপনাকে কানাডায় ভিজিট ভিসা নিয়ে যেতে হবে।

@Exam fees:
MCCEE- 1700 CAD
NAC OSCE- 2300 CAD
MCCQE-1 – 1000 CAD
MCCQE-2- 2300 CAD
1 Canadian Dollar= 62 Tk.

@Preparation:
MCCEE এর জন্য Torronto Notes এবং Online Canada Qbank সলভ করলেই হবে।
এবং NAC OSCE, MCCQE-1, MCCQE-2 এর জন্য আপনাকে কানাডায় গিয়ে কিছু ছোট ছোট কোর্স করতে হবে।

@Residency:
মেডিক্যাল রেসিডেন্সি পোস্ট কম। তাই প্রতিযোগিতা বেশি। আপনার রেসিডেন্সি পেতে হলে স্কোর ৩৫০+ থাকতে হবে সাথে একটি ভাল সিভি। তাহলে রেসিডেন্সি এবং জিপি পোস্ট পাবেন।
আর যদি স্কোর খুব ভাল না হয় তবে প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর এর সাথে ভাল যোগাযোগ থাকতে হবে। এরকম অনেকই দেখা যায় যে ২৫০ স্কোর করে জিপি পোস্ট পায়, রেসিডেন্সি পায় কিন্তু ৩২০ স্কোর করেও কেউ কেউ রেসিডেন্সি পায়না। তাই প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর এর সাথে ভাল যোগাযোগ রাখুন।
আর কারো ইমিগ্রেশন সমস্যা থাকলে নন-ক্লিনিক্যাল এ গিয়ে মাস্টার্স করে জব এ ঢুকে PR এর জন্য এপ্ল্যাই করুন এবং এরপর ৪টা পার্ট শেষ করে রেসিডেন্সি তে এপ্লাই করুন!
খুব লং-টাইম, মানি কনজিউমিং, তাই ধৈর্য্য সহকারে এগোলে হয়ে যায়, আর ভবিষ্যতের কথা নাই বলি, এখন পর্যন্ত কানাডা ই ডাঃ দের সর্বোচ্চ স্যালারী দেয়, সাথে সম্মান তো আছেই!
Good Luck!

প্ল্যাটফর্ম নিউজ ডেস্ক

ফিচার রাইটারঃ জাহিদ হাসান।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ এমবিবিএস, কানাডা, ক্যারিয়ার, চিকিৎসক,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 2)

  1. Raisa Samiha says:

    Please respond. If i want to go to canada for studying non clinical subject with full funding, do i have to sit for GRE? Or IELTS will be enough? I want to go judt after completion of my internship which will be in mid 2019. So when should i start applying and how. I need to know the full procedure along with cost. Please help. Thanks in advance

    • Raisa Samiha says:

      R basic subject er full funding er jonno professor k manage korar kono tips ki ache? R canaday emon kono varsity ki ache jekhane shohoje chance/funding pawa jay?




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
Advertisement
.