ঈশপকে মনে পড়ে

নিউজটি শেয়ার করুন

২০০৬ সাল। ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ থেকে এসএসসির পাস করার পর ভর্তি হলাম একই প্রতিষ্ঠানের কলেজ শাখায়। অন্য স্কুল থেকে অনেকেই ভর্তি হল। তখন শুনতাম একজন ছেলের নাম। বায়োলজিতে নাকি মাত্রাতিরিক্ত ভালো। বাবা মা দুইজনই ডাক্তার। বড় বোন ডাক্তারি পড়ে। তাই সেও মেডিকেলে পড়বে। নাম তার রিয়াসাদ আজিম ঈশপ। কলেজের পরীক্ষায় প্রথম দশের ভিতর থাকত। ভিন্ন সেকশন থাকায় তার সাথে কথা হত না। তার সাথে সখ্যতা গড়ে উঠলো আসলে এইচএসসির পর। আমি, ফজলে, শাকিল ঈশপ, দিবাকর ভর্তি হলাম সব একসাথে মেডিকেল ভর্তি কোচিং এ। ৩ মাস অক্লান্ত পরিশ্রম করলাম। আমি, ফজলে আর শাকিল চান্স পেলাম ঢাকা মেডিকেল কলেজে। ঈশপ পেল ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে। তখন থেকেই বলত সার্জন হবে। কার্ডিয়ো থোরাসিক সার্জন হবে। ক্রিশ্চিয়ান বার্নার্ড ১৯৬৭ সালের ৩ ডিসেম্বর যেমন বিশ্বের প্রথম মানবদেহে হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করেছিলেন আমার বন্ধুও স্বপ্ন দেখত বাংলাদেশের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন সে করবে। দুই শহরে থাকলেও তার সাথে যোগাযোগ ছিল প্রতিনিয়ত। ফেসবুকে চিকিৎসাবিজ্ঞান নিয়ে পেজ চালাতো সে। আমার লেখা শেয়ার দিত।

২০১৪ সালের ১০ মে। আমাদের জীবনে স্মরণীয় দিন। আমরা সে দিন এমবিবিএস চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষা পাস করে ডাক্তার হলাম। ছোটবেলার স্বপ্ন পূরণ হল। এরপর শিক্ষানবিশ চিকিৎসক হিসেবে কাজ শুরু করলাম।

২০১৪ সালের ২৪ জুন। ফেসবুকে দেখলাম ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের একজন শিক্ষানবিশ চিকিৎসক মারা গেছেন। আমি ঈশপকে ফোন দিলাম। ঘটনা জানতে ফোন ধরে না। হঠাৎ কোথায় দেখলাম ডাক্তার ঈশপ মারা গিয়েছে। মাথায় বাজ পড়লো। আমি ওর ওয়ালে গেলাম। তারপর দেখলাম তার বন্ধুরা শোক জানাচ্ছে। বিশ্বাস হল না। এমএমসির আরেক বন্ধুকে ফোন দিলাম। বলল নাইট ডিউটি করে আসার পর টয়লেটে যায়। সেখান থেকে তাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। সাডেন কার্ডিয়াক এরেস্ট।

বাসায় ওকে ভালো করে চিনত। কেউ বিশ্বাস করতেই চায় না।

মানুষের মৃত্যু কখন আসবে কেউ বলতে পারে না। কিন্তু এইভাবে অকালে চলে যাওয়া মেনে নেওয়া কষ্টকর।

আজ ঈশপের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী। যেখানেই থাকিস ভালো থাকিস দোস্ত।

লেখকঃ রজত দাশগুপ্ত 

rajat

Next Post

২০১৪-১৫ বাজেটে স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দের হার আগের চেয়ে কম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Thu Jun 25 , 2015
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের দুই মেয়াদে জাতীয় বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দের পরিমাণ আগের চেয়ে তুলনামূলক হারে কমে এসেছে। আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এ তথ্য দেন। সরকারি দলের আবদুল মুনিম চৌধুরীর এ সম্পর্কিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী স্বাস্থ্য খাতে ২৪ বছরের (১৯৯০-৯১ থেকে ২০১৩-১৪) বাজেটের তথ্য তুলে […]

Platform of Medical & Dental Society

Platform is a non-profit voluntary group of Bangladeshi doctors, medical and dental students, working to preserve doctors right and help them about career and other sectors by bringing out the positives, prospects & opportunities regarding health sector. It is a voluntary effort to build a positive Bangladesh by improving our health sector and motivating the doctors through positive thinking and doing. Platform started its journey on September 26, 2013.

Organization portfolio:
Click here for details
Platform Logo