• প্রতিবেদন

April 22, 2014 11:19 pm

প্রকাশকঃ

” নিরাপদ কর্মস্থল চাই “

 

Mostafizur Rahman Topu

আজকে বেলা ১১টায় মিটফোর্ড হাসপাতালে মাননীয় পরিচালক ও প্রিন্সিপাল দিলীপ স্যারের উপস্থিতিতে হাসপাতালের সকল ডাক্তারের সাথে একটা সভা অনুষ্ঠিত হয় এবং উক্ত সভায় গত কাল ঘটে যাওয়া নেক্কারজনক ঘটনায় আমাদের ডাক্তারদের এখন কী করনীয় এই নিয়ে বিস্তারির আলোচনা করা হয়। সকল লেভেলের ডাক্তারদের একজন করে তাদের বক্তব্য দেয়ার সুযোগ দেয়া হয়। তারপরে স্যাররা এই ব্যাপারে উনাদের মূল্যবাদ মতামত দেন। বিশেষ করে দিলীপ স্যারের বক্তব্য ছিল পুরাই ইন্সপায়ারিং। স্যারদের কথা শুনে মনে হলো স্যাররা কেউ এই ব্যাপারটা এত হালকা ভাবে নিচ্ছেন না। সবাই এইটা কঠোরভাবে নিয়েছেন এবং কঠোর হস্তেই এইটা মোকাবেলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমাদের হাসপাতাল থেকে একটা টিম আজকালের ভিতর ডিজি স্যার, মাননীয় মন্ত্রী এবং স্বাস্থ্য সচিবের সাথে দেখা করে ঘটনা সমন্ধে ব্রিফ করবেন। এলাকার এমপি সাহেব ইতিমধ্যে ঘটনা সমন্ধে অবহিত হয়েছেন। এছাড়া হাসপাতালের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো জোরদার করা হয়েছে। আর সবচেয়ে বড় কথা গতকাল পরিচালক স্যারের রুমে সাংবাদিকরা স্যারকে যেই কথা দিয়ে গিয়েছিলেন তার কোন কথাই রাখেন নাই। গতকাল স্যারের রুমে একটা মীমাংসার মত হয়েছে এবং সাংবাদিকরা কথা দিয়ে গিয়েছিল যে এই ঘটনার আর কোন জের টানা হবে না। তারা স্যারকে বলেন স্যার যেন তাদের একটা প্রেস রিলিজ পাঠায়। তারা স্যারকে ফ্যাক্স নাম্বার দিয়ে যায়। কিন্তু ওদের যখন র‍্যাবের নিরাপত্তা দিয়ে নিরাপদে হাসপাতাল থেকে বের করে দেয়া হয় তখন তারা ভোল পালটানো শুরু করে। পুরা ঘটনা নিয়ে একটা প্রেস রিলিস অল্প সময়ের মাঝে তাদের দেয়া নাম্বারে পাঠানো হয়। কিন্তু তারা এইটা প্রকাশ করেনি। বরং আমাদের পরিচালক স্যার এবং প্রিন্সিপাল স্যারের নাম নিয়ে মিডীয়াতে মিথ্যা অভিযোগ করে যাচ্ছে। এইটা পুরাই মিথ্যাচার এবং কথার বরখেলাপ। আশা করি আমরা সবাই এক থাকবো এবং তাদের দাত ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে।

শেয়ার করুনঃ Facebook Google LinkedIn Print Email
পোষ্টট্যাগঃ ডাক্তার নির্যাতন, মিটফোর্ড, সাংবাদিক, হলুদ সাংবাদিকতা,

পাঠকদের মন্তব্যঃ ( 0)




Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

Advertisement
Advertisement
.