X

ছুরিকাঘাতে আহত ডা. আদনান এর অবস্থার অবনতি, ঢামেকে স্থানান্তরঃ ফরিদপুরে মানব বন্ধন

ছুরিকাঘাতে আহত ডা. আদনান ঢাকা মেডিকেল আইসিইউ’তে স্থানান্তরঃ ফরিদপুরে মানব বন্ধন

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত ডা. আদনান ইব্রাহীম এর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আই.সি.ইউ তে স্থানান্তর করা হচ্ছে।

১৮ তারিখ ভোর রাতে হামলার পরে, গুরুতর আহত অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসায় শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকে গেলেও আজ ১৯ তারিখ ভোর থেকে বমি হতে থাকে। ব্রেনে কোন আঘাত থাকতে পারে ধারনা করে সিটি স্ক্যান করা হয়।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা অভিযোগ জানায়, ডা. আদনান ইব্রাহীম এর চিকিৎসায় হাসপাতাল প্রশাসনের সহযোগিতার মনোভাব ছিল না। হাসপাতালের একজন ইন্টার্ন চিকিৎসক হয়েও জরুরি ভিত্তিতে সিটি স্ক্যান করতে গেলে, সহযোগিতা পায় নি বলে অভিযোগ করেন তারা।

সর্বশেষ খবর অনুসারে, ডা. আদনান ইব্রাহীম ৮ বার বমি করেছে এবং ব্লাড পেশার ছিল ৮০/৬০।
দ্রুততার সহিত তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

ঐদিকে ছুরিকাঘাতে আহত চিকিৎসক ও শিক্ষার্থীর উপর ন্যাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ প্রাঙ্গণে মানব বন্ধন করেছে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ এর ইন্টার্ন চিকিৎসক এবং শিক্ষার্থীরা। মানব বন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন এবং মিছিলটি কলেজ ও হাসপাতাল সহ পার্শ্ববর্তী এলাকা প্রদক্ষিন করে। দ্রুত ভিত্তিতে সন্ত্রাসীদের বিচারের আয়ত্তায় আনার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, গতকাল ১৮ মে, ২০১৯ সেহেরির পরে, চায়ের দোকানে সিগারেট খাওয়াকে কেন্দ্র করে, ফমেক ছাত্রলীগের সভাপতি ডা. রায়হানুল ইসলাম, সহ-সভাপতি ডা. আদনান ইব্রাহীম এবং ছাত্রলীগ কর্মী রেদোয়ান এর উপর হামলা করে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও তার অনুসারীরা। এক পর্যায়ে ছুরি দিয়ে আঘাত করলে গুরুতর ভাবে জখম হয় ডা. আদনান ইব্রাহীম।

ওয়েব টিম: